নিউজপোল ডেস্ক: ক্রমেই গরম উঠছে এই গ্রহ। বিশ্ব উষ্ণায়নের জেরে একটু একটু করে বাড়ছে পৃথিবীর তাপমাত্রা। এর পেছনে দায়ী শুধু মানুষ। অথচ দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে গোটা জীবকুল। হায়দরাবাদে এখন তাপমাত্রা ৪৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এই অসহনীয় গরমের ফলে অসুস্থ হয়ে পড়ছে পাখিরা। উড়ন্ত অবস্থায় অসুস্থ হয়ে আকাশ থেকে মাটিতে পড়ে যাচ্ছে তারা। এরকম বেশ কিছু ঘটনা সামনে এসেছে সম্প্রতি। কিছু ক্ষেত্রে শুশ্রুষা করে বাঁচানো যাচ্ছে তো কিছু পাখি মারা যাচ্ছে। ১২ জুন একটি কোকিল দিলখুশনগরে আকাশ থেকে নীচে পড়ে যায়। আপাতত সেটি সুস্থ আছে। ভারতীয় প্রাণী মিত্র সংঘের সাধারণ সচিব মহেশ আগরওয়াল জানিয়েছেন, ‘খবর পাওয়া মাত্র আমরা এক স্বেচ্ছাসেবককে ঘটনাস্থলে পাঠাই। পাখিটিকে উদ্ধার করে সুস্থ করার পর সেটি ফের উড়ে চলে গেছে।’

জানা যাচ্ছে, শুধুমাত্র উষ্ণতা বৃদ্ধির কারণেই এই দশা তা নয়। ক্রমাগত গাছ কাটার ফলে কমে যাচ্ছে খেচরদের বাসস্থান। তা ছাড়া, যে সব জায়গায় পাহাড় কেটে সমতল করা হয়েছে কিংবা পাথর বিস্ফোরণ করা হয়েছে সেখানে হিট-স্ট্রোকে অসুস্থ হয়ে পড়ছে পাখিরা। নেহরু জুলজিক্যাল পার্কের প্রাণিবিদ নবীন কুমার বলছেন, সারস জাতীয় পাখিদের কষ্ট তুলনামূলক কম, কারণ তারা জলে থাকে। যারা ওড়ে বেশি কষ্ট তাদের বেশি। মেঘের ওপর ওড়া পাখিদের (যেমন শকুন) ক্ষেত্রে সমস্যা কম কিন্তু কারণ তারা ৫০ ডিগ্রি সেলসিয়াস পর্যন্ত তাপমাত্রা সহ্য করতে পারে। কিন্তু চিলের পক্ষে সূর্যের এই প্রখর তাপ খুবই কষ্টদায়ক।