নিউজপোল ডেস্ক:‌ বরাদ্দ বাংলো না পাওয়া পর্যন্ত দিল্লিতে এসে হোটেলেই থাকেন নতুন সাংসদরা। এজন্য কোটি কোটি টাকা খরচ হয়। মেটায় সরকারি কোষাগার। এবার নতুন সাংসদদের জন্য সেই হোটেল ভাড়া নেওয়া বন্ধ করল লোকসভা সচিবালয়। এতে বাঁচবে ৩০ কোটি টাকা।
লোকসভা সেক্রেটারি জেনারেল স্নেহলতা শ্রীবাস্তব বলেন, ‘‌দিল্লিতে এসে নতুন সাংসদদের যাতে কোনও অসুবিধা না হয়, সেজন্য প্রায় ৩০০টি ঘরের ব্যবস্থা করা হয়েছে। এই ঘরে সমস্ত সুযোগ–সুবিধাও রয়েছে’‌। কোথায় এই ঘরের ব্যবস্থা করা হয়েছে?‌ স্নেহলতা জানান, ‘‌ওয়েস্টার্ন কোর্টের নতুন অ্যানেক্স বিল্ডিং এবং রাজ্যের ভবনগুলোতে নতুন সাংসদদের থাকার ব্যবস্থা করা হয়েছে। এ বছর আর হোটেলের ঘর ভাড়া নেবে না লোকসভা সচিবালয়’‌।
২০১৪ সালে নতুন সাংসদদের জন্য বিলাসবহুল হোটেলে ঘরের ব্যবস্থা করতে গিয়ে ৩৫ কোটি টাকা খরচ হয়েছিল সরকারের। এক–একটি ঘরের দৈনিক ভাড়া ছিল ৯০০০ থেকে ১০,০০০ টাকা। শ্রীবাস্তব জানান, প্রত্যেক লোকসভা কেন্দ্রে নিযুক্ত রিটার্নিং অফিসারদের ঘরের বিষয়ে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে। নতুন সাংসদদের বেশ কিছু ফর্ম ভরতে হবে। সেই ফর্মও ইতিমধ্যেই রিটার্নিং অফিসারদের কাছে পাঠিয়ে দেওয়া হয়েছে। এই প্রথমবার।

ছবি লোকসভা সচিবালয়ের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে