নিউজপোল ডেস্ক: লোকসভা ভোটের অনেক আগে থেকেই বিজেপি বুঝে গিয়েছিল যে আম জনতাকে নিজেদের হাতের মুঠোয় রাখতে গেলে তার একমাত্র হাতিয়ার সোশ্যাল মিডিয়া। আর তা বুঝতে পেরেই গেরুয়া শিবিরের রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সংঘ (‌আরএসএস)‌ এবার ইউটিউবে নিজস্ব চ্যানেল খুলে তাদের প্রচার কার্যকে আরও একধাপ এগিয়ে নিয়ে গেল। জানা গিয়েছে, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদীর ‘‌মন কি বাত’‌ অনুষ্ঠানটিকে অনুসরণ করেই আরএসএস শুরু করেছে ‘‌জ্ঞান শৃঙ্খলা’‌ নামের একটি অনুষ্ঠান। এই অনুষ্ঠানের এক–একটা পর্বের মাধ্যমে আরএসএস তাদের মতাদর্শ, তাদের অবস্থান সহ রাজনৈতিক–সামাজিক বিভিন্ন বিষয়কে দর্শকের সামনে তুলে ধরবে। আরএসএসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, মানুষের কাছে সহজে পৌঁছানোর মাধ্যম হল সোশ্যাল মিডিয়া। আর তাই ইউটিউবে এই চ্যানেল খোলা তাদের।
আরএসএসের মতে, ঋগ–বৈদিক যুগে নারীরা বেশি ক্ষমতাশালী ছিল। কিন্তু এরপর আসে নারীদের মধ্যে পর্দা প্রথা। যা রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক মনে করে তা উপমহাদেশের ইসলামী প্রভাবের ফল। এইসব বিষয় নিয়েই ‘‌জ্ঞান শৃঙ্খলা’‌ নামক অনুষ্ঠানে চর্চা করা হবে বলে জানা গিয়েছে। দিল্লির আরএসএসের জনসংযোগ আধিকারিক রাজীব তুলি বলেন, ‘‌ইউটিউবে এই অনুষ্ঠানটি বেশ জনপ্রিয় হয়েছে। অনেকেই এই ভিডিওটি দেখেছেন। আমরা এখন প্রাথমিক স্তরে এই ইউটিউব চ্যানেলটিকে মানুষের কাছে পৌঁছানোর চেষ্টা করছি। তবে আশা রাখছি খুব শীঘ্রই বড় সংখ্যক দর্শক আমাদের এই চ্যানেলটিকে ভালোবাসবেন।’‌ সংঘের শীর্ষ নেতৃত্বরাই এই ‘‌জ্ঞান শৃঙ্খলা’‌ অনুষ্ঠানে নিজেদের মতাদর্শকে তুলে ধরবেন বলে জানা গিয়েছে। আরএসএসের প্রথম ১২ মিনিটের ভিডিওতে দেখা গিয়েছে সংঘের সাধারণ সম্পাদক কৃষ্ণ গোপাল ও সহ সাধারণ সম্পাদক মনমোহন বৈদ্যকে। এই ভিডিওতে মনমোহন বৈদ্য সমাজের হিন্দু নারীদের বর্তমান পরিস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন করছেন কৃষ্ণ গোপালকে। তবে হিন্দু নারী ছাড়াও বিভিন্ন বিষয় নিয়ে এই ভিডিওতে কথোপকথন করতে দেখা যায় সংঘের শীর্ষ দুই নেতৃত্বকে।