নিউজপোল ডেস্ক: তিনি খুব‌ অসুস্থ। এই বলে বৃহস্পতিবার মুম্বইয়ের দায়রা আদালতে হাজিরা দেননি ২০০৮ মালেগাঁও বিস্ফোরণ মামলার অন্যতম অভিযুক্ত সাধ্বী প্রজ্ঞা। অথচ ওইদিনই দুপুরে তাঁর লোকসভা কেন্দ্র ভোপালে অন্য ভূমিকায় দেখা গেল তাঁকে। সেখানে এমপি নগরে মহারাণা প্রতাপের মূর্তিতে মালা পরালেন। রাণার জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে। যদিও একবারও তাঁকে মনে হয়নি, তিনি অসুস্থ।
বুধবার সন্ধেবেলা কয়েক জন বিজেপি নেতার সঙ্গে ভোপালের কাজি সৈয়দ মুস্তাক আলি নাদভির বাড়িতে যান সাধ্বী প্রজ্ঞা। শুকনো ফলমূল, মিষ্টিও উপঢৌকন হিসেবে নিয়ে যান। এর পরেই রাতে ভোপালের কেয়ার হাসপাতালে ভর্তি হয়ে যান তিনি। বলা হয় উচ্চ রক্তচাপের কারণেই অসুস্থ হয়ে পড়েছেন। আবার বৃহস্পতিবার সেখান থেকে ছাড়াও পেয়ে যান।
বৃহস্পতিবার সকালেই মুম্বইয়ের দায়রা আদালতে হাজিরা দেওয়ার কথা ছিল তাঁর। গত মাসেই আদালত নির্দেশ দেয়, সপ্তাহে অন্তত একবার মালেগাঁও বিস্ফোরণে অভিযুক্তদের হাজিরা দিতে হবে। সোমবার সাধ্বী জানান, ৩ থেকে ৭ জুন তিনি আদালতে হাজির থাকতে পারবেন না। যদিও তাঁর আবেদন খারিজ হয়ে যায়। শেষ পর্যন্ত শুধু বৃহস্পতিবার তাঁর হাজিরা মকুব করে দেয় মুম্বইয়ের দায়রা আদালত। তবে সাফ জানিয়ে দেয়, শুক্রবার আদালতে হাজিরা দিতেই হবে তাঁকে। সঙ্গে তাঁর হাসপাতালে ভর্তি হওয়ার নথিও দাখিল করতে হবে। সাধ্বী জানিয়েছেন, শুক্রবার আদালতে উপস্থিত হওয়ার চেষ্টা করবেন তিনি।
এই মামলায় আর এক অভিযুক্ত সুধাকর ধর দ্বিবেদীও আদালতে হাজিরা দেননি। তিনি জানিয়েছেন, জম্মু ও কাশ্মীরে ক্ষীর মহোৎসব চলছে। সেখানে তাঁকে থাকতেই হবে। ১৩ জুন মুম্বইতে ফেরার টিকিট কাটা রয়েছে। তাঁর আগে ফিরতে পারবেন না। বিশেষ বিচারক ভি এস পাদালকর এই বিষয়ে তীব্র ক্ষোভ জানিয়েছেন।