নিউজপোল ডেস্ক: ২০১৯ বিশ্বকাপের সেমিফাইনালে ভারতীয় ক্রিকেট দলের হারে যে শুধু সওয়া’শো কোটি ভারতীয়ের মন ভেঙেছে তাই-ই নয়, ক্ষতি হয়েছে প্রায় ১০০ কোটি টাকার। গতকালের ম্যাচ নিয়ে জুয়ার বাজার ছিল গরম। ফেভারিট ভারতের পক্ষে বাজি ধরেছিলেন অগণিত মানুষ। দিনের শেষে খালি হাত এবং খালি পকেটেই ফিরতে হল সবাইকে।

খবরে প্রকাশ, কালকের ম্যাচে ভারতের পক্ষে দর ছিল ৪.৩৫ টাকা এবং নিউজিল্যান্ডের পক্ষে ৪৯ টাকা। অঙ্কটা দেখেই এটা অনুমান করে নেওয়া অসুবিধা নয় যে সাট্টা বাজারের কেউ অন্তত নিউজিল্যান্ড ম্যাচ জিতবে বলে আশা করেননি। কিউয়িরা ভারতকে মাত্র ২৪০ রানের লক্ষ্য দিতে পারায়, সেই ভরসা আরও জোরদার হয়েছিল। ৯০ শতাংশের বেশি জুয়াড়ি তাই বাজি ধরেছিলেন ভারতের পক্ষেই। শুধু তাই নয়, ভারত জিতবে এবং তাতে প্রচুর টাকা লাভ হবে অনুমান করে জুয়াড়িরা রীতিমতো ঘর বুক করে রেখেছিলেন হোটেলে। উদ্দেশ্য ছিল, ভারতের জয়ে তাঁদের হওয়া লাভের উদযাপন। কিন্তু সমস্ত আশায় জল ঢেলে ‘আন্ডারডগ’ কিউয়িরা ভারতকে এবারের মতো ছিটকে দিল বিশ্বকাপ থেকে।

ভারতের গত ম্যাচে ১০ কোটি টাকা লাভ করেছিলেন জুয়াড়ি রাজবীর সিং। ভারত নিউজিল্যান্ড ম্যাচে জেতা অঙ্ক পুরোটাই খুইয়েছেন তিনি। সেশন প্রতি যে বেটিং হয়, সেখানেও লোকসান হয়েছে ধোনি-জাদেজা জুটির ওপর ভরসা রাখা জুয়াড়িরা। পুলিশ সূত্রে পাওয়া খবরে, দিল্লি এনসিআর অঞ্চলে বাজির টাকার অঙ্ক ছাড়িয়েছিল ১৫০ কোটি। খেলার ফলাফল ছাড়াও ব্যক্তিগতভাবে বাজি লাগানো হয়েছিল বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা, কেন উইলিয়ামসন এবং মার্টিন গাপটিলের ১০০ রান করার ওপরে। বোলারদের মধ্যে ছিলেন যশপ্রীত বুমরা, যুজবেন্দ্র চহাল, ট্রেন্ট বোল্ট এবং লকি ফার্গুসনের তিন উইকেট নিতে পারার বিষয়ে। কোনও দল ৪০০ রান করতে পারবে কি না তাই নিয়েও ছিল বাজি।