নিউজপোল ডেস্ক: গুজরাটের কাদি তালুকের মেহসানা জেলার ছোট্ট গ্রাম ঝুলাসান। বলা হয়, মধ্যযুগে এই গ্রামে একবার ডাকাতদের হামলা হয়। দোলা নামক এক মুসলমান মহিলা অত্যন্ত সাহসের সঙ্গে যুদ্ধে করে গ্রামকে রক্ষা করে প্রাণ হারান। পুঁথিতে লেখা প্রত্যক্ষদর্শীদের কথা অনুসারে, মৃত্যুর পরই দোলার দেহ ফুলে পরিণত হয়। দোলার সম্মানার্থে গ্রামবাসীরা ঠিক সেই জায়গাতেই একটি মন্দির নির্মাণ করেন, যেখানে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেছিলেন। মধ্যযুগ থেকে আজ পর্যন্ত, দোলার উপাসনা করে চলেছেন ঝুলাসানের বাসিন্দারা।

মন্দিরের নাম দোলা মাতা মন্দির। এই মন্দিরে কোনও নির্দিষ্ট মূর্তি নেই। একটি পাথরকে শাড়ি পরিয়ে তাকেই দোলার প্রতীক রূপে পুজো করা হয়। সম্প্রতি অবশ্য মন্দিরটি সংস্কার করে চার কোটি টাকা ব্যয় করে জমকালো মন্দির তৈরি করা হয়েছে। ঝুলাসান গ্রামের আরেকটি বিশেষত্ব হল, এই গ্রামেই জন্ম এবং বড় হয়ে ওঠা ভারতের প্রথম মহিলা মহাকাশবিজ্ঞানী সুনীতা উইলিয়ামসের। এই গ্রামের তাঁর পরিবার বসবাস করছেন গত কয়েক দশক ধরে। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র থেকে বাড়ি ফিরে সুনীতা নিজের পরিবারের সঙ্গে এই গ্রামে একবার পুজো করতে গেলে, মন্দিরটি বহির্বিশ্বের নজরে আসে।

কথিত রয়েছে, দোলা মাতার মন্দির অত্যন্ত জাগ্রত। গ্রামবাসীদের বিদেশে বসবাসের মনোষ্কামনা পূর্ণ করেন তিনি। গ্রামের আদি সাত হাজার বাসিন্দাদের মধ্যে দেড় হাজার জনই বর্তমানে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রবাসী। তবে বাড়ি এলে তাঁরা অবশ্যই এই মন্দিরে পুজো দিতে যান।