নিউজপোল ডেস্ক: চিকিৎসকদের আন্দোলন আর এই রাজ্যে সীমাবদ্ধ থাকল না। তার ব্যাপ্তি ছড়িয়ে পড়ল গোটা দেশে। পরিষেবা বন্ধ করার কথা আগেই ঘোষণা করেছিল দিল্লির এইম্‌স। এবার সেই পথে হাঁটল গোটা দেশের প্রায় সমস্ত সরকারি মেডিক্যাল কলেজগুলি। সেই সঙ্গে আগামী ১৭ জুন দেশের সমস্ত হাসপাতালে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছে ইন্ডিয়ান মেডিক্যাল অ্যাসোসিয়েশন। দেশের সর্বোচ্চ চিকিৎসক সংগঠনের তরফে জানানো হয়েছে, জরুরি বিভাগ খোলা থাকবে কিন্তু বহির্বিভাগ (ওপিডি)-র সমস্ত কাজকর্ম স্থগিত থাকবে ওই দিন।

এনআরএস-এর জুনিয়র ডাক্তারদের আন্দোলনে আগেই সামিল হয়েছিল রাজ্যের অন্যান্য মেডিক্যাল কলেজগুলি। চিকিৎসকদের গণ ইস্তফার খবর আসছিল একের পর এক। এবার, উত্তরপ্রদেশ, বিহার, অসম, তেলঙ্গানা, অন্ধ্রপ্রদেশ, মহারাষ্ট্র, পঞ্জাবের মতো দেশের প্রায় সব রাজ্যের হাসপাতালের চিকিৎসকরা বাংলার আন্দোলনের অনুসরণ করলেন। কোথাও কাজ বন্ধ রেখে আন্দোলন করা হয়েছে, কোথাও চিকিৎসকরা রাস্তায় নেমে প্রতিবাদে সামিল হয়েছেন। ফলে বহির্বিভাগের কাজকর্ম কার্যত শিকেয় উঠেছে।

গতকালই (বৃহস্পতিবার) মাথায় ব্যান্ডেজ বেঁধে প্রতীকি প্রতিবাদ জানিয়েছিলেন দিল্লির এইম্‌স হাসপাতালের চিকিৎসকরা। জানিয়ে দেওয়া হয়েছিল শুক্রবার বন্ধ থাকবে সব ধরনের পরিষেবা (এমনকী জরুরি বিভাগও)। আজ প্রচুর মানুষ চিকিৎসা করাতে এলেও বিফলমনোরথ হয়ে ফিরতে হয়েছে তাদের। দিল্লির পথেই হেঁটেছে মহারাষ্ট্র। ওই রাজ্যের প্রায় সমস্ত সরকারি হাসপাতালের পরিষেবা কার্যত বন্ধ ছিল। অন্ধ্রপ্রদেশ এবং তেলঙ্গানার পরিস্থিতিও একই। পশ্চিমবঙ্গের চিকিৎসক আন্দোলনের আঁচ ছড়িয়ে পড়েছে দক্ষিণের এই দুই রাজ্যেও।