নিউজপোল ডেস্ক: আরও একবার বাংলার বুকে শিল্পীর বাকস্বাধীনতা হরণের চেষ্টা। আর এবার শিকার প্রবাসী ভারতীয় সাহিত্যিক টিনা বিশ্বাস। আমেরিকার এই বাঙালি লেখিকা তাঁর বই ‘দ্য অ্যান্টাগনিস্ট’ প্রকাশে এসেছিলেন কলকাতায়। ২৪ মার্চ প্রেস ক্লাবে বই প্রকাশের দিন একটি অদ্ভুত ঘটনা লক্ষ্য করেন টিনা। দু’‌জন অজ্ঞাত পরিচিত লোক অনেকক্ষণ ধরে তাঁকে লক্ষ্য করছে। গোটা বই প্রকাশে টিনা কী কী বলছেন ? কী কী করছেন? এসব কিছুই খুব খুঁটিয়ে লক্ষ্য করছিল তারা। বেশ কয়েকবার টিনার সঙ্গে চোখাচোখি হয় তাদের। টিনা বলেন ‘ওদের আবভাব আমার একেবারেই সুবিধার লাগছিল না’।

অনুষ্ঠান শেষে টিনা আয়োজকদের জিজ্ঞেস করে জানতে পারেন, ওরা তৃণমূলের সদস্য। আয়োজক বলেন ‘দিদির লোক’— তাতেই পরিষ্কার হয়ে যায় গোটা বিষয়টা। ২০১১ সালে এএমআরআই (আমরির) ভয়াবহ অগ্নিকান্ড নিয়ে বই লিখেছেন টিনা। বইয়ে এমনকিছু জায়গা রয়েছে যেখানে পশ্চিমবঙ্গের আইন, প্রশাসন নিয়ে কথা বলা হয়েছে। দুর্ঘটনায় মৃত প্রায় ১০০ জন রোগীর পরিবারের লড়াইয়ের গল্প। প্রতি মুহূর্তে মানুষের জীবন নিয়ে কীভাবে ব্যবসা চলে বেসরকারি হাসপাতালগুলোতে, সে কথাও লিখেছেন টিনা। এতে ভোটের আগে বড়সড় প্রভাব পড়তে পারে বাংলার রাজনীতিতে বলে মত বিশেষজ্ঞদের।

সম্প্রতি অনিক দত্তের ‘ভবিষ্যতের ভূত’ ছবিটির ওপরেও নিষেধাজ্ঞা জারি হয় এ রাজ্যে। কেন?‌ সেই উত্তর আজও মেলেনি। এবার কোপে টিনার বই। লেখিকা জানান বই প্রকাশ অনুষ্ঠানে তাঁর একটা ছোট বক্তৃতা ছিল। সেটা শেষ করে বেরনোর সময়ও এক অজ্ঞাত পরিচয় ব্যক্তি এসে তাঁর ওপর চড়াও হয়। বারবার টিনাকে হুমকি দিয়ে বলে, মুখ্যমন্ত্রীকে নিয়ে ভুল ভাল কিছু লিখলে ফল ভাল হবে না। টিনা বুঝতে পেরেছিলেন তখনই জল অন্যদিকে গড়াচ্ছে। এ বিষয়ে তৃণমূল সাংসদ সুখেন্দু শেখর রায়কে জিজ্ঞেস করা হলে তিনি বলেন ‘আমি জানি না বইয়ে কী লেখা আছে, লেখার ব্যপারে লেখকের পূর্ণ স্বাধীনতা আছে’।