নিউজপোল ডেস্ক:‌ মনোনয়ন পেশের হলফনামায় শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে ভুল তথ্য দিয়েছেন!‌ এই অভিযোগে ডায়মন্ডহারবারের তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়কে তলব করল দিল্লির এক আদালত। সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী সার্থক চতুর্বেদী ভুয়ো ডিগ্রির অভিযোগ তুলে মামলাটি করেন। সেই মামলার পরিপ্রেক্ষিতে ২৫ জুলাইয়ের মধ্যে অভিষেককে হাজিরার নির্দেশ দিয়েছে দিল্লির আদালত।
প্রসঙ্গত, গত লোকসভা নির্বাচনের আগে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের ভাইপো, অভিষেকের বিরুদ্ধে একই অভিযোগ এনেছিল সিপিএম। বিধানসভায় দলের পরিষদীয় নেতা সুজন চক্রবর্তীর অভিযোগ, নির্বাচন কমিশনকে দেওয়া হলফনামায় অভিষেক জানান তিনি এক বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে ২০০৮-০৯ সালে এমবিএ পাশ করেন। অথচ ওই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানই ২০১৪ সালে দিল্লি হাইকোর্টে জমা দেওয়া হলফনামায় জানিয়েছিল, তারা কোনও ডিগ্রি দেয় না।

এই বিষয়ে সাংসদের ঘনিষ্ঠরা জানান, ওই বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান দিল্লি আদালতকে ২০১৪ সালে হলফনামা দিয়েছিল। সেই হলফনামায় জানিয়েছিল, যে তারা ডিগ্রি দেয় না। আর অভিষেক ডিগ্রি পেয়েছিলেন ২০০৯ সালে। সুতরাং এই ক্ষেত্রে আদালতের রায় প্রযোজ্য নয়। তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি অভিষেকের ডিগ্রি নিয়ে এর আগে অভিযোগ তুলেছিল বিজেপি–ও।