নিউজপোল ডেস্ক: মদ্যপান স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকারক। এই বিধিসম্মত সতর্কীকরণ যে মদ্যপান খুব একটা কমিয়ে দিয়েছে সে কথা হলফ করে বলা যাবে না। চিকিৎসকরা অবশ্য পরামর্শ দিচ্ছেন পরিমিত মদ্যপানে ক্ষতি নেই। সাম্প্রতিক বেশ কিছু সমীক্ষা আবার দাবি করেছে, অ্যালকোহল শরীরের অনেক উপকারও করে। মনের কতটা উপকার করে তা নিয়েও একটি চাঞ্চল্যকর তথ্যাবলি প্রকাশিত হয়েছে। বেশ কিছু বাস্তব উদাহরণ দিয়ে দাবি করা হয়েছে, জীবনে নতুন দিশা দেখাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে অ্যালকোহল। দেখা যাক সেই উদাহরণগুলি কী কী।

১) ফেসবুকের প্রতিষ্ঠাতা মার্ক জুকারবার্গ বিশ্বের কনিষ্ঠতম বিলিয়নেয়ার। কিন্তু কীভাবে তাঁর মাথায় এই যুগান্তকারী চিন্তা মাথায় এল? জানা গেছে, হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে এক রুম-মেটের সঙ্গে বিয়ার পান করাকালীন তাঁর মাথায় ফেসবুক সৃষ্টির আইডিয়া আসে। তিনি নিজেই বলেছেন, বিয়ার খেলে মস্তিষ্কে নতুন নতুন ভাবনার জন্ম হতে থাকে।

২) কলকাতা শহরে অ্যাপ নির্ভর ট্যাক্সি উবের চড়েন অনেকেই। উবেরের যুগ্ম উদ্ভাবক ট্রাভিস ক্যালানিক এবং গ্যারেট ক্যাম্প-এর কাছ থেকে পাওয়া গেছে চমকপ্রদ তথ্য। ট্রাভিস জানিয়েছেন, ‘প্যারিসে একদিন আমি আর গ্যারেট নানা রকম ভাবনা নিয়ে নাড়াচাড়া করছিলাম। মৃদু গান বাজছিল। আর আমরা মদ্যপান করতে-করতে সানফ্রান্সিসকো শহরের মারাত্মক ট্যাক্সি-সমস্যা নিয়ে আলোচনা করছিলাম। সেই শহরে ট্যাক্সি পেতে গেলে কতক্ষণ রাস্তায় দাঁড়িয়ে থাকতে হয় সেটা নিয়েই আমাদের মধ্যে একটা তর্ক বেধে গেল। দুম করে মাথায় ক্লিক করে গেল উবের-কনসেপ্ট। সেই বছরই প্যারিস শহরে আমরা শুরু করলাম লিমো টাইমশেয়ার সার্ভিস। সেই শুরু। আজ আমরা কোথায় দাঁড়িয়ে আছি তা সবাই জানেন। এটা সেই সন্ধের মদ্যপানের কারণেই যে হয়েছে তাতে আমার কোনও সন্দেহ নেই।’

৩) এক রবিবারের সন্ধ্যায় বিয়ার খেতে খেতে আধ্যাত্মিক গুরু ওশো-কে নিয়ে আলোচনা করছিলে অনিরুদ্ধ গুপ্তা এবং নিকুঞ্জ জৈন। আলোচনার বিষয় সেখানে থেকে সরে ব্যবসায় চলে এল। অনিরুদ্ধ এক নতুন ব্যবসায় লগ্নি করার প্রস্তাব দিলেন নিকুঞ্জকে। বিয়ারেরই গুণ কি না কে জানে, রাজি হয়ে গেলেন নিকুঞ্জ। আজ দেশের অন্যতম স্টার্টআপ সংস্থা ‘ট্রিপোটো’।

রেডিট, টিন্ডার, থ্রিলিস্ট মিডিয়া গ্রুপের মতো আরও অনেক স্টার্টআপ সংস্থার গোড়াপত্তন হয়েছে মদ্যপানের ফলে। তাই মদ্যপান স্বাস্থ্যের পক্ষে ক্ষতিকারক বলে যতই গলা ফাটানো হোক না কেন, স্বীকার করতেই হবে, উপকারও নেহাত কম নেই।