নিউজপোল ডেস্ক: শরীর ঠিক রাখতে নিয়মিত জিমে যাওয়ার প্রবণতা ইদানীং অনেক বেড়েছে। নিয়মিত শরীরচর্চা করা দরকারও। কিন্তু মানসিক স্বাস্থ্যের কথা ভেবেছেন কখনও? শরীরের পাশাপাশি মনের খেয়াল রাখাও জরুরি। খুব সহজে উভয়দিকেই আপনি নজর রাখতে পারেন। নিউ মেক্সিকো হাইল্যান্ডস ইউনিভার্সিটির গবেষকরা দাবি করেছেন যে, নিয়মিত হাঁটলে শরীরের সঙ্গে চাঙ্গা থাকবে মনও।
স্মৃতিশক্তি: বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে আমাদের স্মৃতিশক্তি লোপ পেতে থাকে। অল্প বয়সেও দেখা যায় এই সমস্যা। চিকিৎসকরা বলছেন, স্মৃতিশক্তি বাড়ানোর ক্ষেত্রে নিয়মিত হাঁটার বিকল্প নেই।
বিষণ্নতা থেকে মুক্তি: বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার পরিসংখ্যান অনুসারে, বিষণ্নতার দিক থেকে ভারত প্রথম দশের মধ্যে চলে এসেছিল গতবছরেই। বর্তমান প্রজন্মেও ছাপ ফেলছে বিষণ্নতা, অবসাদ। অথচ কিংগস কলেজ লন্ডন জানিয়েছে, রোজ অন্তত ২০ মিনিট অনুশীলন করলেই কাটিয়ে উঠতে পারেন অবসাদ।
বুদ্ধিমান: হার্ভার্ড স্বাস্থ্য সমীক্ষায় বলা হয়েছে, হাঁটার ফলে প্রত্যুৎপন্নমতিত্ব অস্বাভাবিক হারে বাড়ে। যেকোনও আপৎকালীন পরিস্থিতি সামাল দেওয়ার ক্ষমতা তুলনামূলকভাবে অনেক বেশি হয়।
সৃজনশীলতা: সৃষ্টিশীল হতে কে না চায়! এর বিকল্প কিছু নেই। নিয়মিত হাঁটাহাঁটি করলে সৃজনশীল মনের বিকাশ হয়।
মানসিক স্বাস্থ্য: নিয়মিত হাঁটলে মস্তিষ্কে রক্তপ্রবাহ স্বাভাবিক থাকে। ফলে কোনওরকম মানসিক সমস্যা কাবু করতে পারে না।
তাহলে আর দেরি কীসের? মনে রাখবেন, আপনার স্বাস্থ্য ঠিক রাখার দায়িত্ব আপনারই। সুস্বাস্থ্যের অধিকারী হতে গেলে শরীরের যেমন ভূমিকা রয়েছে, তেমনি মনকেও গুরুত্ব দেওয়া দরকার। তাই সব সমস্যার সমাধান হাতের নাগালে পেতে হলে প্রতিদিন নিয়মিত হাঁটুন।