নিউজপোল ডেস্ক:‌ মিষ্টি খান না, কিন্তু ফুচকা খান!‌ মিষ্টি খান না, কিন্তু ঝাল খান!‌ মিষ্টি খান না, কিন্তু মিষ্টি পান চেবান!‌ চাপ নেই। দ্বিতীয়গুলো খেলেই আপনার মিষ্টিও খাওয়া হয়ে যাবে। পেয়ে যাবেন মিষ্টির পুষ্টিগুণ। কারণ কলকাতার স্বাতী সরাফ ওই স্বাদের রসগোল্লা তৈরি করছেন।
অন্তত ২০০ রকম স্বাদের রসগোল্লা তৈরি করে স্বাতী ইতিমধ্যেই বিখ্যাত। কলকাতার সব খাদ্য মেলায় স্টল দেন তিনি। পার্টি বা বিশেষ অনুষ্ঠানেও মিষ্টি সরবরাহ করেন। যা একান্তই বাঙালির, সেই রসগোল্লার মেকওভারের প্রয়োজন পড়ল কেন?‌ স্বাতী জানালেন, ইদানীং কমবয়সিরা আর মিষ্টি খায় না। বয়স্করা অসুখবিসুখের কারণে খান না। তাই তাঁর মনে হয়েছিল, রসগোল্লার স্বাদে যদি একটু অদলবদল আনা যায়, তাহলে কমবয়সিরা আকৃষ্ট হবে। অন্যদিকে তা তৈরিতে কৃত্রিম রং, গন্ধের ব্যবহার না করলে বয়স্করাও নির্দ্বিধায় খেতে পারবেন।
এই ভাবনা থেকেই বিভিন্ন ফল, সবজি, মশলার স্বাদের রসগোল্লা তৈরি শুরু করেন তিনি। ২০১৬ সাল থেকে। স্ট্রবেরি, ব্লুবেরি, কমলা, আপেল, তরমুজ, আনারসের মতো ফলের স্বাদের রসগোল্লা রয়েছে তাঁর ঝাঁপিতে। বাচ্চাদের পছন্দের কথা ভেবে তৈরি করেন ম্যাগি, বাব্‌লগাম আর চকোলেট ফ্লেভারড রসগোল্লা। যাঁরা স্বাস্থ্য সচেতন, তাঁদের জন্য রয়েছে তুলসি, দারুচিনি, লবঙ্গ, লেবু, কারিপাতা, জিরে ফ্লেভারের রসগোল্লা। এছাড়াও তাঁর তৈরি ক্যাপুচিনো, কাঁচা লঙ্কা, পুদিনা, কালা খাট্টা স্বাদের রসগোল্লা দারুণ জনপ্রিয়। তবে সবথেকে বেশি প্রচারে বোধ হয় কাঁচালঙ্গা আর ফুচকা ফ্লেভারের রসগোল্লা।