নিউজপোল ডেস্ক: ‌রেস্তোরাঁতে ক্যান্ডেল নাইট ডিনার বা শপিং মলে কেনাকাটা। সব ক্ষেত্রেই নারীদের শখ–আহ্লাদ পূরণ করে থাকেন পুরুষরা। কিন্তু তাও তাঁদেরকে কিপটে অ্যাখা দিল এক সমীক্ষা। ‘‌মানুষের ব্যবহারের প্রকৃতি’‌ সংক্রান্ত এক সমীক্ষায় জানা গিয়েছে, কাউকে সাহায্য করার ক্ষেত্রে পুরুষের তুলনায় নারীরা বেশি উদার হয়। গবেষকরা তাঁদের গবেষণায় দেখেছেন, কাউকে টাকা ধার দেওয়ার ক্ষেত্রে পুরুষদের তুলনায় নারীরা বেশি এগিয়ে আসেন। বরং পুরুষরা টাকা নিজের কাছে রেখে দিতেই বেশি পছন্দ করেন।
জুরিখ বিশ্ববিদ্যালয়ের নিউরোইকোনমিকস এবং সোশ্যাল নিউরোসায়েন্সের সহ অধ্যাপক ফিলিপ টবলার এ প্রসঙ্গে বলেন, ‘‌মেয়েরা সামাজিক আচরণকে বেশি গুরুত্ব দিয়ে থাকে এবং পুরুষের কাছে স্বার্থপরতাই বেশি দামি। মস্তিষ্কের কোন জায়গা থেকে সিদ্ধান্তের এ পার্থক্য হয়ে থাকে, সেটা আমাদের অজানা। তবে দুটি লিঙ্গের ক্ষেত্রেই এসব সিদ্ধান্তে ডোপামিন সিস্টেম সংকেত দেয়।’‌ সংকেত বলতে টবলার বোঝাতে চেয়েছেন, সমাজে চলার পথে বিভিন্ন সময়ে নেওয়া সিদ্ধান্তের সঙ্গে মস্তিষ্কের কার্যক্ষমতাও আনুপাতিক হারে পাল্টে যায়।
নারী–পুরুষ কেন সমানভাবে স্বার্থপর নয়, এ নিয়ে গবেষকরা জানিয়েছেন ‘‌ডোপামিন সিস্টেম’‌–এর কারণেই এই পার্থক্য। জানা গিয়েছে, জীবনে কোনও কিছু পাওয়ার ইচ্ছা, প্রেরণা, আবেগ নিয়ন্ত্রণ করে থাকে মস্তিষ্কের ‘‌রিওয়ার্ড সিস্টেম’‌। যেখানে এই ‘‌ডোপামিন’‌–এর ভূমিকা মৌলিক। এর প্রভাব বুঝতে গবেষকরা কিছু পরীক্ষা করেন। যেখানে ৫৬ জন নারী–পুরুষের হাতে কিছু টাকা দিয়ে বলা হয়েছিল যে এই টাকা তাঁরা নিজেদের কাছে রাখতে পারে বা অন্যদের সঙ্গে ভাগ করেও নিতে পারে। পরীক্ষায় দেখা গিয়েছে, পুরুষের চেয়ে নারীরা এ বিষয়ে বেশি উদার।