নিউজপোল ডেস্ক:‌ সকালে ঘুম থেকে উঠেও ঘুম ছাড়ছে না!‌ অফিসে বসে ঝিমুনি পাচ্ছে?‌ চা পানেও ঘুম যাচ্ছে না তো?‌ তাহলে পান করে দখুন ভূত জলোকিয়া চা। আপনার এই সমস্যার সমাধানের জন্য বাজারে এল ঝাল চা–টি। গুয়াহাটির এক চা সংস্থা গুঁড়ো চায়ের সঙ্গে লঙ্কার নির্যাস মিশিয়ে তৈরি করেছে। পান করলে নাকি নিমেষে চাঙ্গা।
এককালে দুনিয়ার সবথেকে ঝাল লঙ্কা ছিল অসমের ভূত জলোকিয়া। ২০০৭ সালে গিনেস বুক অফ রেকর্ড তাকে এই শিরোপা দেয়। ২০১৩ সালে আমেরিকার ক্যারোলিনা রিপার প্রজাতির লঙ্কার কাছে হেরে যায় ভূত জলোকিয়া। সেই অসম্ভব ঝাল লঙ্কার লঙ্কার নির্যাসের সঙ্গে ঢেঁকিতে চায়ের গুঁড়ো মেশানো হয়েছে। সংস্থার ডিরেক্টর রঞ্জিত বড়ুয়া জানালেন, ‘‌অসমের চায়ের পাশাপাশি এই ভূত জলোকিয়া লঙ্কাও বিখ্যাত। তাই দু’‌টিকে এবার এক করে চা–প্রেমীদের কাছে একটা চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দেওয়া হল’‌।

ভূত জলোকিয়া লঙ্কা

বড়ুয়াবাবু গত ২০ বছর ধরে বিভিন্ন বেসরকারি চা সংস্থায় চাকরি করতেন। ২০১৮ সালের নভেম্বরে নিজের সংস্থা খোলেন। নাম ‘‌টেন্ডা বাডস টিস অ্যান্ড ক্রাফটস’‌। বরাবর চাইতেন, নতুন ধরনের কিছু তৈরি করে গ্রাহকদের কাছে পৌঁছে দেবেন। এবার তাই করলেন। কিন্তু হঠাৎ এই অদ্ভুত খেয়াল এল কী করে?‌ রঞ্জিত বড়ুয়া জানালেন, এই ভাবনা খুব নতুন নয়। আফ্রিকা এবং দক্ষিণ–পূর্ব এশিয়ার বেশ কিছু উপজাতিরা লঙ্কা মেশানো চা পান করেন। সেই চায়ের স্বাদ বেশ ভাল লেগেছিল বড়ুয়াবাবুর। তাই তৈরি করে ফেলেন। তাঁর মতে এই চায়ের অনেক উপকারিতাও রয়েছে। লঙ্কায় থাকে ক্যাপসাইসিন। এই ক্যাপসাইসিন সংক্রমণ রুখতে পারে। ডায়বেটিসও নিয়ন্ত্রণে রাখে। তাছাড়া লঙ্কায় ভিটামিন সি থাকে। এই ভিটামিন সি রোগপ্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায়। স্কার্ভি সারায়। এক বাক্স ভূত জলোকিয়া চায়ের দাম ৪০০ টাকা। এক বাক্সে থাকে ৭০ গ্রাম চা। এই ঝাল চা ছাড়াও বড়ুয়া বাবুর সংস্থা ১৮ রকমের চা উৎপাদন করে। তার মধ্যে বিখ্যাত নীল চা। বাটারফ্লাই পি ফুলের সঙ্গে মিশিয়ে তৈরি হয় এই চা। বড়ুয়া বাবুর আশা, এই নতুন ধরনের চা চা–শিল্পকে চাঙ্গা করবে।