নিউজপোল ডেস্ক: ১৩০ কোটি ভারতবাসীর স্বপ্নভঙ্গ হয়েছে বুধবার। রিজার্ভ ডে-তে নিউজিল্যান্ডের ২৪০ তুলতে গিয়ে ১৮ রানে হেরে বিদায় নিয়েছে কোহলি অ্যান্ড কোং। হারের ময়নাতদন্তে অনেকরকম ত্রুটি এবং ভুল সিদ্ধান্তের কথা উঠে আসছে। তার মধ্যে সবচেয়ে বেশি যে বিষয় নিয়ে আলোচনা হচ্ছে তা হল ঋষভ পন্থকে কেন ধোনির আগে ব্যাট করতে পাঠানো হল। পাঁচ রানে তিন উইকেট পড়ে গেছে, এমন সময় ধোনির মতো দায়িত্বশীল এবং ধরে খেলা ব্যাটসম্যানকে নামানো উচিত ছিল এবং দাবি সাধারণ সমর্থক থেকে বহু বিশেষজ্ঞদের।

পন্থ অনভিজ্ঞ, গুরুত্বপূর্ণ মুহূর্তে তাঁর উইকেট ছুড়ে দিয়ে আসার নিদর্শন আগেও দেখা গেছে। এদিনও ব্যক্তিগত ৩২ রানের মাথায় মিচেল স্যান্টনারকে মিড উইকেটের ওপর দিয়ে ছয় মারতে গিয়ে ক্যাচ আউট হন পন্থ। আউট হতেই বিরাট কোহলিকে বেশ উত্তেজিত অবস্থায় সাজঘর থেকে বেরিয়ে ব্যালকনিতে বসে থাকা হেড কোচ রবি শাস্ত্রীর কাছে এসে কথা বলতে দেখা গেল। কোহলির উত্তেজিত হওয়া স্বাভাবিক, ওই পরিস্থিতিতে বড় শট খেলার কোনও প্রয়োজন ছিল না। অনেকেই মনে করছেন, ঋষভকে আগে নামানোর সিদ্ধান্ত শাস্ত্রীর, কোহলির তাতে সমর্থন ছিল না। সেই কারণেই ঋষভ আউট হতে কোচের ওপর খেপে যান অধিনায়ক।

ম্যাচের পর সাংবাদিক সম্মেলনে আসলে কোহলিকে এই ঘটনা নিয়ে প্রশ্ন করা হয়। তিনি অবশ্য বলে গেলেন, বিতর্কিত কিছু ঘটেনি। ওই পরিস্থিতিতে ইনিংস কী করে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হবে বা পরবর্তী স্ট্র্যাটেজি কী হবে তা-ই আলোচনা করছিলেন তিনি। নেটিজেনরা কিন্তু তাঁর এই ব্যক্তব্যকে খুব একটা আমল দিচ্ছেন না। বিরাটের উত্তেজিত হয়ে শাস্ত্রীর সঙ্গে কথা বলার ভিডিও সোশ্যাল সাইটে পোস্ট করে অনেকেই লিখেছেন, কোচের ওপর খেপে গেছেন ক্যাপ্টেন। দু’জনের মধ্যে এতদিনের মধুর সম্পর্কে অম্লত্ব এল কি? সময়ই বলবে।