তমাল পাল: নীলরতন সরকার মেডিক্যাল কলেজ এবং হাসপাতালকে কেন্দ্র করে পশ্চিমবঙ্গ তথা সারা দেশের চিকিৎসকরা আন্দোলনে নেমেছেন। চিকিৎসাক্ষেত্রে অচলাবস্থা। এই পরিস্থিতিতেও চিকিৎসকরা কিন্তু নিজেদের কর্তব্য ভোলেননি। একদিকে বাঁকুড়া সম্মিলনী মেডিক্যাল কলেজে কালো ব্যাজ পরেও রোগী দেখছেন চিকিৎসকরা। অন্যদিকে হাসপাতালের বাইরে যেখানে অবস্থান বিক্ষোভ চলছে, তার পাশে দাঁড়িয়েই শিশুদের চিকিৎসা করছেন বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজের শিশু বিশেষজ্ঞ ডা:‌ শিবনাথ মণ্ডল।
কর্মক্ষেত্রে নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। এই দাবিতে এনআরএস–এর চিকিৎসকদের পাশে রাজ্যের বিভিন্ন সরকারি মেডিক্যাল কলেজের জুনিয়র ডাক্তাররা। ব্যতিক্রম নয় বর্ধমান মেডিক্যাল কলেজও। সেখানে আবার আন্দোলনকারীদের তুমুল মারধর করেছে স্থানীয় গুণ্ডারা। কিন্তু সেজন্য নিজের কর্তব্য থেকে সরেননি চিকিৎসকরা। কর্মবিরতির অনেক আগে থেকেই কয়েকটি শিশুকে দেখতে হবে বলে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ ছিলেন ডা:‌ শিবনাথ মণ্ডল। তখন কেই বা জানত এ রকম সমস্যা হবে! সমস্যা এলেও নিজের কর্তব্যে অনড় শিবনাথ। একের পর এক শিশুকে দেখে কর্তব্য পালন করছেন বর্ধমান হাসপাতালের ওই শিশু চিকিৎসক। তিনি জানান, ‘আমিও কর্মবিরতিতেই রয়েছি। কিন্তু এর অনেক আগে একাধিক রোগীকে কথা দেওয়া ছিল। তাই রোগীর পরিবার শিশুদের নিয়ে আমার কাছে আসছেন। হাসপাতালের বাইরে বসেই যতটা সম্ভব আমি শিশুদের দেখছি এবং ওষুধ লিখে দিচ্ছি।’ চিকিৎসকদের দিকে রোগীর পরিবার থেকে সরকার যখন আঙুল তুলছে, তখন শিবনাথের এই উদ্যোগ নজিরবিহীন। খুশি রোগীর পরিবাররাও।‌