“অনেক হয়েছে মমতা, পরিবর্তন চাইছে জনতা” নবদ্বীপে তৃণমূলের বিরুদ্ধে নতুন স্লোগান বেঁধে দিলেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি জেপি নাড্ডা।

বিজেপি সভাপতির দাবি, ‘বাংলায় গেরুয়া হাওয়া বইছে, ফলে গদি হারাবেন মমতা। তৃণমূল সরকার, মা-মাটি-মানুষের সঙ্গে প্রতারণা করেছে। এই সরকার বিশ্বাসঘাতক। বাংলায় লুটতরাজ চালিয়েছে তৃণমূল। আমফান এবং রেশনে দুর্নীতি হয়েছে। এই পরিবর্তন যাত্রা বাংলার মানুষকে জাগ্রত করার যাত্রা। এই পরিবর্তন শুধু রাজনৈতিক পরিবর্তন নয়, মতাদর্শগত পরিবর্তন। বাংলার মানুষ জেগে উঠেছেন।’

নবদ্বীপের পরিবর্তন যাত্রার সূচনা তৃণমূল কংগ্রেস ও মমতা ব্যানার্জীকে কটাক্ষের মাধ্যমে করলেন নাড্ডা। তিনি বলেন, ‘বাঙালি-বহিরাগত ইস্যু সামনে আসছে। এটা বাংলার সংস্কৃতি নয়, মমতা বাংলার সংস্কৃতির অনাদর করছেন।’ এরপর দায়িত্ব নিয়ে বিজেপি সভাপতি বলেন, ভোটের পর বাংলার সংস্কৃতির নেতৃত্ব একজন বাঙালিই করবেন। অর্থাৎ বিজেপি সভাপতি আরও একবার স্পষ্ট করে দিলেন, বিজেপি ক্ষমতায় এলে এরাজ্যের কোনও ভূমিপুত্রই মুখ্যমন্ত্রী হবেন। নাড্ডা আরো জানান, ‘ মমতা সরকারের পতন ঘটলেই ৭০ লক্ষ কৃষক কিষাণ সম্মান নিধি পাবেন। নিজেদের অধিকার পাবেন কৃষকরা। বাংলায় চালু হবে আয়ুষ্মান ভারত যোজনাও। ২৩ মের পর বাংলায় সব হবে।’ এরপর নাড্ডা বলেন, ‘একজন মহিলা মুখ্যমন্ত্রী হওয়া সত্ত্বেও ন্যাশনাল ক্রাইম রেকর্ড ব্যুরোর রেকর্ড অনুযায়ী, বাংলায় নারীরা সবচেয়ে অসুরিক্ষত। এরাজ্যে সবচেয়ে বেশি ধর্ষণ হয়।’ যদিও বাস্তব পরিসংখ্যান বলছে এই তথ্য অসত্য। দেশের মধ্যে নারীরা সবচেয়ে বেশি অসুরক্ষিত বিজেপি শাসিত উত্তরপ্রদেশে।