ভারতের পুণে শহরের বুকে এই প্রথম সম্পূর্ণ মূক ও বধির কর্মচারীদের নিয়ে শুরু হল এক রেস্টুরেন্ট। যদিও মুম্বই এ এরকম বেশ কিছু রেস্টুরেন্ট দেখা গেলেও পুণে শহরে এই প্রথম এমন উদ্যোগ। কাস্টমারদের সাথে সম্পূর্ণ সাংকেতিক চিহ্নে কথা বলেন তারা। শুধুমাত্র তাই নয় মেনুকার্ডেও প্রতিটা খাবারের নামের পাশে সাংকেতিক ভাষার কোডও দেওয়া থাকে। রেস্টুরেন্টের কর্ণধার সোনম কাপসে জানান সামাজিক সচেতনতা গড়ে তোলার জন্যে এটা আমার একটা প্রাথমিক পদক্ষেপ। আমার কাছে ২০ জন সম্পূর্ণ মূক ও বধির কর্মচারী কাজ করে। উনি মনে করেন সোনমের এই উদ্যোগ আরও অনেককেই উৎসাহিত করবে। কাস্টমাররা যখন খাবার অর্ডার করেন তখন মেনুকার্ডের পাশে থাকা চিহ্ন টি ওদের দেখিয়ে দেন। সোনমের কথায় কমিউনিকেশন করাটা ওদের সাথে খুবই সহজ, ঠিক যেমন আমরা বাচ্চা দের সাথে চিহ্ন দেখিয়ে কথা বলি। দিলীপ নামে এক কাস্টমার জানায়, রেস্টুরেন্টেটির পরিবেশ ও কর্ণধার এর চিন্তাভাবনাকে কুর্নিশ জানাই। খাবারের স্বাদ ও প্রশংসনীয়। পুণে তে এরকম একটা পদক্ষেপ পরবর্তীতে অন্য আরও মানুষকে উৎসাহিত করবে।