কৃষক আন্দোলন নিয়ে এখনও উত্তাল উত্তর ভারত। কৃষকদের অবশ্যই প্রতিবাদের অধিকার রয়েছে।

কিন্তু, সেই প্রতিবাদের জেরে রাস্তার যান চলাচল বন্ধ হয়ে যেতে পারে না।

এই সমস্যার সমাধান কেন্দ্র, উত্তরপ্রদেশ ও হরিয়ানা সরকারকেই খুঁজতে হবে। সোমবার সাফ জানিয়ে দিল সুপ্রিম কোর্ট।

মণিকা আগরওয়াল নামে নয়ডার এক বাসিন্দার রিট আবেদনের শুনানি চলাকালীন ভারতের শীর্ষ আদালত এই ঘোষণা করে।

মনিকা আগরওয়াল জানান, তিনি মার্কেটিংয়ের কাজ করেন।

কর্মসূত্রে তাঁকে প্রায় রোজই নয়ডা থেকে দিল্লি যেতে হয়। কিন্তু রাস্তা আটকে থাকায় ২০ মিনিটের পথ যেতে প্রায় দুই ঘণ্টা লেগে যাচ্ছে।

রোজ এই একই ভোগান্তি ক্রমশ দুঃসাধ্য হয়ে উঠছে। মনিকা আগরওয়ালের কথার ভিত্তিতে কথার ভিত্তিতে সুপ্রিম কোর্ট জানায়,

আবেদনকারী যে সমস্যার কথা জানিয়েছেন তা অনেকেরই হচ্ছে। সমাধানের দায়িত্ব কেন্দ্র, উত্তরপ্রদেশ এবং হরিয়ানা সরকারের।

প্রতিবাদ এখন চলতে থাকবেই, তার জন্য কোনওভাবেই যান চলাচল বন্ধ হওয়া কাম্য নয়।

রাস্তায় আসা যাওয়ার সময় মানুষকে যেন এরূপ সমস্যায় পড়তে না হয়।

বিচারপতি এস কে কাউল ও হৃষীকেশ রায়কে নিয়ে গড়া সুপ্রিম কোর্টের ডিভিশন বেঞ্চ গতকাল এই নির্দেশ দিয়েছে।

সলিসিটর জেনারেল মেহতা সুপ্রিম কোর্টে জানান যে, সুপ্রিম কোর্টের নির্দেশ অনুযায়ী চেষ্টা চালানো হচ্ছে।

কিন্তু মনিকা আগরওয়াল পাল্টা দাবী করেন,

সুপ্রিম কোর্ট আগেও এমন নির্দেশ দিয়েছিল কিন্তু সমস্যার সমাধান হয়নি।

এই মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ধার্য হয় আগামী ২০শে সেপ্টেম্বর।