নিউজপোল ডেস্কঃ ইউএপিএ ধারায় খাপলাং গোষ্ঠীর সমস্ত কার্যকলাপ বেআইনি ঘোষণা করে নাগা বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠনটির উপর চাপ বাড়িয়েছে কেন্দ্র সরকার। বলে রাখা ভাল, নাগা শান্তি প্রক্রিয়ার গোড়া থেকেই বিরোধ করে আসছে NSCN-k বা খাপলাং গোষ্ঠী। তবে কয়েক বছর আগে মায়ানমারে সংগঠনটির প্রধান খাপলাংয়ের বার্ধক্যজনিত কারণে মৃত্যু হওয়ায় নাগাল্যান্ডে সংগঠনটির প্রভাব অনেকটাই খর্ব হয়ছে। এছাড়া, NSCN-IM-এর সঙ্গে বিরোধ প্রবল হয়ে ওঠায় অনেকটাই জমি খুইয়েছে খাপলাং গোষ্ঠী।

দু’বছর বাড়ল নিষেধাজ্ঞার মেয়াদ। কেন্দ্রের সাঁড়াশি চাপে আরও বিপাকে নাগা জঙ্গিগোষ্ঠী NSCN-K। সোমবার নিষেধাজ্ঞার মেয়াদবৃদ্ধির কথা ঘোষণা করল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রক। বিবৃতিতে কেন্দ্র সাফ জানিয়েছে, পৃথক নাগালিম গড়ার উদ্দেশ্যে ভারতবিরোধী বিচ্ছিন্নতাবাদী কার্যকলাপ চালিয়ে যাচ্ছে সংগঠনটি।

উল্লেখ্য, নাগাল্যান্ড, মণিপুর, অরুণাচল প্রদেশ, মিজোরাম, অসম ও মায়ানমারের বিস্তীর্ণ অঞ্চল নিয়ে নাগা স্বাধীনভূমি বা ‘নাগালিম’ গড়ার ডাক বহুদিনের৷ এই দাবিতে অনেক দিন ধরেই জঙ্গি আন্দোলন চালিয়ে যাচ্ছে নাগা বিচ্ছিন্নতাবাদী সংগঠন এনএসসিএন (NSCN)৷ সংগঠনটি দু’ভাগ হয়ে যাওয়ার পর মুইভা গোষ্ঠীর সঙ্গে আলোচনা চালাচ্ছে কেন্দ্র৷ কিন্তু সমস্ত আলোচনার থমকে আছে এনএসসিএন(আইএম) -এর দুটি দাবির উপর। পৃথক পতাকা এবং পৃথক সংবিধান। যা কিছুতেই মানতে নারাজ দিল্লি।