নিউজপোল ডেস্কঃ প্রাক্তন ক্রিকেটার লক্ষ্মীরতন শুক্লা মঙ্গলবাই রাজনীতি থেকে সাময়িক অবসরের কথা জানিয়েছেন। যা নিয়ে রাজনৈতিক জল্পনা তুঙ্গে। এই ঘটনার পর আজ, বৃহস্পতিবার সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হয়ে তিনি জানিয়েছেন, কোনও রাজনৈতিক দলের সাথে এই মুহূর্তে যুক্ত হতে চান না। আপাতত খেলার দিকেই মনোনিবেশ করতে চান লক্ষ্মী। তিনি আরও বলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রতি আমার শ্রদ্ধা ছিল এবং থাকবে৷ পাশাপাশি যাঁদের সঙ্গে এতদিন কাজ করেছেন তাঁদেরও সবাইকে ধন্যবাদ জানিয়েছেন তিনি।

মঙ্গলবার দুপুরে মন্ত্রিত্ব এবং জেলা সভাপতির পদ থেকে ইস্তফা দিয়েছেন লক্ষ্মীরতন শুক্লা। যদিও আনুষ্ঠানিক ভাবে এখনও তৃণমূলের সদস্যপদ ছাড়েননি লক্ষ্মী৷ ইস্তফাপত্রে তিনি বলেছিলেন, ‘রাজনীতি থেকে আপতত সরে দাঁড়াতে চাই৷ ক্রীড়াবিদ হিসেবেই আমার সবথেকে বড় পরিচয়। ক্রীড়া ক্ষেত্রে কাজ করে যাব। তবে জনতার ভোটে নির্বাচিত হওয়ায় বিধায়ক পদে থাকছি৷’ আজ সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েও একই কথা জানান তিনি। সাংবাদিকদের পক্ষ থেকে বিজেপিতে যোগদানের প্রশ্ন করা হলে তিনি বলেন, ‘কোথাও যোগদানের প্রশ্ন নেই। তবে কারোর বিরুদ্ধে ক্ষোভ রয়েছে কিনা জানতে চাওয়া হলে সব কথা প্রকাশ্যে বলতে চাই না বলেই মন্তব্য করেন রাজ্যের প্রাক্তন এই মন্ত্রী। 

তবে বৃহস্পতিবার লক্ষ্মী ফেসবুকে তাঁর ও সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের ক্রিকেটের ময়দানের একটি হাতে আঁকা ছবি পোস্ট করেন। নীচে লেখেন, ‘একজন প্রকৃত নেতা বা অধিনায়ক শুধু নিজেই খেলেন না, সঙ্গে দলকেও খেলান।’ এতেই শুরু হয়েছে নতুন জল্পনা। তবে কি অরূপ রায়কে জবাব দিলেন লক্ষ্মী? না কি তিনি সৌরভের দলে রয়েছেন বলে বোঝাতে চাইলেন? এরপরেই এই বিষয়ে প্রশ্ন করা হলে সৌরভের প্রশংসায় পঞ্চমুখ হন লক্ষ্মী।