তিনি গোটা বিশ্বের নারীর হার্টথ্রব। সেই হলিউড তারকা লিওনার্দো দি ক্যাপ্রিও কি না শুরু করলেন জুতোর ব্যবসা!‌ না অভিনয় থেকে সরে আসেননি লিও। বরং জুতোর ব্যবসা শুরু করার পিছনে রয়েছে অন্য এক উদ্দেশ্য।

‘‌অলবার্ডস’‌ যে সংস্থায় বিনিয়োগ করেছেন লিওনার্দো, তারা পরিবেশবান্ধব জুতো প্রস্তুতকারক হিসেবেই পরিচিতি রয়েছে তাদের। মরা গাছের দেহাবশেষ, কাগজ— ইত্যাদি দিয়ে জুতো তৈরি করে তারা। ফলে ব্যবহারের পরে জুতো ফেলে দিলেও সেটার থেকে পরিবেশ দূষণ হয় না। প্রকৃতির সঙ্গে মিশে যায়। সেই কারণেই তাদের সংস্থায় বিনিয়োগ করেছেন বলে জানিয়েছেন লিওনার্দো। টুইটারে তিনি লিখেছেন, ‘এই সংস্থা একটা উন্নত ভবিষ্যৎ তৈরি করার চেষ্টা করছে। বাকি সংস্থাগুলোর কাছে একটা ভাল উদাহরণ রাখছে। একজন পরিবেশ সচেতন মানুষ হিসেবে আমি এদের পাশে দাঁড়ানো সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’‌

পরিবেশপ্রেমী হিসেবে বরাবরই সুনাম রয়েছে লিওনার্দোর। পরিবেশরক্ষার কাজে ইতিমধ্যেই ৮০ মিলিয়ন মার্কিন ডলারেরও বেশি দান করেছেন লিওর ফাউন্ডেশন। ভারতীয় অর্থমূল্যে যার পরিমাণ ৫৫ কোটি টাকারও বেশি। গত বছরই বন্যপ্রাণী সংরক্ষণ নিয়ে কাজ করে এমন একটি সংস্থাকে ২০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার (‌যা ভারতীয় অর্থমূল্যে ১৩ কোটি টাকার একটু বেশি)‌ দান করেছেন লিওনার্দো দিকাপ্রিও। পাশাপাশি বেলিজে ব্যক্তিগত দ্বীপেও পরিবেশ দূষণ রোধ করার জন্য ব্যবস্থা নিয়েছেন।