যুদ্ধের চূড়ান্ত প্রস্তুতি সেরে রাখছে পাকিস্তান। আকাশে উড়ছে যুদ্ধবিমান,অ্যাটাক হেলিকপ্টার,ড্রোন। এফ সিক্সটিন,জেএফ সেভেনটিন থান্ডার উপরের দিকে উঠে যাচ্ছে। মাটিতে রয়েছে আল খালিদ ট্যাংক। প্রশিক্ষণপ্রাপ্ত এসএস জি কমান্ডো বাহিনী নিজেদের প্রস্তুতি সেরে নিচ্ছে । যুদ্ধের চূড়ান্ত প্রস্তুতি সেরে রাখছে পাকিস্তান।অবশ্য স্বীকার না করে এগুলোকে রুটিন এক্সারসাইজ বলছে তারা। পাকিস্তান সামরিক বাহিনীর মিডিয়া উইং জানিয়েছে যুদ্ধের প্রস্তুতি নয়, পাকিস্তানের দুই বাহিনীর ভেতর বোঝাপড়া বাড়াতেই এই অনুশীলন।

ভারতীয় প্রতিরক্ষামন্ত্রকের কড়া নজরে আছে পাকিস্তানের এই ওয়ার ড্রিল। ভারতীয় সীমানা থেকে মাত্র বিরানব্বই কিলোমিটার দূরে গুজরানওয়ালায় চলছে এই ড্রিল। প্রায় পঞ্চাশটি যুদ্ধবিমান, চল্লিশটি ট্যাংক অংশ নিয়েছে। পাকিস্তান আর্মির প্রধান কামার জাভেদ বাজওয়া ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিমান বাহিনীর প্রধান মুজাহিদ আনোয়ার খান। ভারতের দাবি, পাকিস্তানের কব্জায় থাকা কাশ্মীর নিয়ে চিন চিন্তিত, সেকারণে এই অঞ্চলে বিশাল পরিমাণ অর্থলগ্নি করেছে তাঁরা।

হঠাৎ ভারত হামলা চালালে প্রস্তুতি না থাকার কারণে জায়গা খোয়াতে হতে পারে পাকিস্তানকে। তাই চিনের নির্দেশেই ওই এলাকায় প্রস্তুতি জোরদার করার লক্ষ্যে পাকিস্তান। ভারতীয় বাহিনী চুপ করে বসে নেই, তারা আগেই সেরে রেখেছে প্রস্তুতি, একথা অবশ্যই অনেকেই জানেনা। পূর্ব লাদাখে চিনের সঙ্গে অশান্তি কমেনি আজ পর্যন্ত। পাশাপাশি ভারতীয় বাহিনীকে ব্যস্ত রাখার জন্য যে চেষ্টা চালানো হবে সে খবর ইতিমধ্যেই পেয়েছে দিল্লি। সেই মত প্রস্তুতিও সেরে রেখেছে ভারতের তিন বাহিনী। কয়েকদিন আগেই কলকাতা থেকে সিডিএস বিপিন রাওয়াত দুই শত্রু দেশের উদ্দেশ্যে ভারতীয় বাহিনীর প্রস্তুত থাকার কথা ঘোষণা করেছিলেন।