ভোটের আগে রাজ্য বিজেপির সদর দফতরে ‘ঘরবদল’। মুকুল রায়ের ঘর দেওয়া হচ্ছে শোভন চট্টোপাধ্যায়কে ও বৈশাখীর বন্দ্যোপাধ্যায়কে।সম্প্রতি শোভনকে কলকাতা জোনের পর্যবেক্ষক ঘোষণা করেছে বিজেপি । সহ-পর্যবেক্ষক হয়েছেন বৈশাখী।

কলকাতা জোনের দায়িত্ব দেওয়া হয়েছে কেন্দ্রীয় নেতা সুনীল বনশলকে। কলকাতা, বারাকপুর, খড়দহ, বসিরহাট, বারুইপুর ও বিধাননগরের আসনগুলির রণনীতি দেখবেন তিনিই। বসবেন রাজ্য দফতরে। সেখান থেকে পরিচালনা হবে ১৩ হাজার বুথে দলের যাবতীয় কর্মসূচি। আপাতত বনশল থাকছেন উত্তরপ্রদেশ সরকারের অতিথিশালায়। রাজ্য দফতরে এই মুহূর্তে তাঁর আলাদা ঘর, বিশ্রামঘরের ব্যবস্থা করা হচ্ছে। চলছে রঙের কাজও। দল বহরে বাড়লেও মুরলীধর সেন লেনে বিজেপির অফিস আর বাড়েনি। স্থান সঙ্কুলানের না হওয়ার জন্য নির্বাচনী অফিস সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে হেস্টিংসে। সেখানেই আপাতত বসছেন মুকুল রায়। ফলে রাজ্য অফিসে ফাঁকা পড়ে তাঁর ঘর। নির্বাচন পর্যন্ত ওই ঘরই দেওয়া হচ্ছে শোভন ও বৈশাখীকে।

শোভন-বৈশাখী বিজেপিতে যোগ দেওয়ার পর শুধুই বিতর্ক ও মান-অভিমান চলছে। বিজেপির কোনও কর্মসূচিতেই দেখা যায়নি শোভন ও বৈশাখীকে। নভেম্বরে অমিত শাহের সঙ্গে বৈঠকের পরই বদলায় ছবি। ২৭ ডিসেম্বর কলকাতা জোনের পর্যবেক্ষক হন শোভন চট্টোপাধ্যায়। আর সহ-পর্যবেক্ষক বৈশাখী বন্দ্যোপাধ্যায়।