নিউজপোল ডেস্কঃ আসন্ন ইন্ডিয়ান প্রিমিয়ার লিগ নাকি হতে চলেছে ১০ দলের। কয়েকমাস যাবত যা নিয়ে জল্পনা ছিল তুঙ্গে। চলতি বর্ষে আইপিএল-এর আগে আগে এমনই একটি খবর প্রকাশ পেয়েছিল বিসিসিআই-এর এক রিপোর্টে। যদিও অধিকাংশ ফ্র্যাঞ্চাইজি বিসিসিআই’য়ের এমন সিদ্ধান্তের বিরোধীতায় সরব হয়েছিল। তবে সম্প্রতি টাইমস অফ ইন্ডিয়ার এক রিপোর্টে প্রকাশ পায় ২০২১ সালে আইপিএল অনুষ্ঠিত হবে আটটি দলকে নিয়েই। নয়া দু’টি দল বা ফ্র্যাঞ্চাইজি অন্তর্ভুক্তির জন্য বিড ওপেন করা হবে ২০২২ আইপিএলের আগে। এই ইস্যুতে বিসিসিআই কি সিদ্ধান্ত নেয়, তা আগামী ২৪ ডিসেম্বর আমেদাবাদে বোর্ডের বার্ষিক সাধারণ সভাতেই চূড়ান্ত হবে বলে মনে করা হচ্ছে।

সূত্রের খবর আগামী মরশুমে আইপিএল অনুষ্ঠিত হতে হাতে রয়েছে মাত্র কয়েকটি মাস। তাই আসন্ন মরশুমে নতুন দলের সংযুক্তিকরন করা হচ্ছে না। তবে নয়া দু’টি দল বা ফ্র্যাঞ্চাইজি অন্তর্ভুক্তির জন্য বিড ওপেন করা হবে ২০২২ আইপিএলের আগে। অর্থাৎ, বিসিসিআই’য়ের পরিকল্পনা অনুযায়ী ভবিষ্যতে ১০ দলকে নিয়েই অনুষ্ঠিত হবে আইপিএল।

এইদিকে, ২০২১ সালে আইপিএল-এ নতুন দলের অন্তর্ভুক্তি হওয়ার আভাস পেয়ে, আগে থেকেই গোয়াহাটিকে কেন্দ্র করে একটি নতুন দল গঠনের প্রস্তাব জানিয়েছিল আসাম ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশান। তবে বোর্ডের পক্ষ থেকে সেই প্রস্তাব খারিজ করা হয়েছে বলে সূত্রের খবর। নতুন দলের দৌড়ে প্রথমেই যে দলের কথা ভেসে আসছে তা হল আহমেদাবাদ। সম্প্রতি আহমেদাবাদের মোতেরা স্টেডিয়ামকে নতুন রূপে সুসজ্জিত করেছে গুজরাত ক্রিকেট বোর্ড। তাই বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় এই ক্রিকেট লিগকে স্বাগত জানাতে তৈরি এক লাখ দশ হাজার আসন বিশিষ্ট এই স্টেডিয়াম।

অন্যদিকে দ্বিতীয় দল হিসাবে লিগে প্রবেশ করতে পারে লখনউ বা কানপুর। পাশাপাশি পুনেও এই যুদ্ধে নিজেকে শামিল করেছে বলে বোর্ডের সূত্রে খবর। নতুন দল সংযুক্তির পাশাপাশি আবার এও শোনা যাচ্ছে, ড্রিম ১১-র পরিবর্তে টুর্নামেন্টের নতুন টাইটেল স্পনসরশিপ স্বত্ত্ব নিয়ে টেন্ডার ডাকতে চাইছে বিসিসিআই। যা ২০২০ আইপিএলের আগে তুলে দেওয়া হয়েছিল ড্রিম ১১-র হাতে।