নিউজপোল ডেস্কঃ ১২৩ তম আইএফএ শিল্ড জিতে ইতিহাস গড়ল রিয়াল কাশ্মীর এফসি। কাশ্মীরের প্রথম ক্লাব হিসেবে শতাব্দীপ্রাচীন এই টুর্নামেন্ট জিতল তারা। কলকাতার ফুটবল ক্লাব জর্জ টেলিগ্রাফকে ২-১ গোলে হারিয়ে প্রথমবার শিল্ড জিতল রিয়াল কাশ্মীর।

সেমিফাইনালে মহামেডান স্পোর্টিংকে ৪-০ গোলে হারিয়ে ফাইনালে ফেভারিট হিসেবেই পা রেখেছিল ডেভিড রবার্টসনের ছেলেরা। অন্যদিকে ইতিহাসের সন্ধিক্ষনে দাঁড়িয়ে স্বপ্ন দেখতে শুরু করেছিল জর্জ টেলিগ্রাফ। কলকাতার দুই প্রধানকে ছাড়া কলকাতার মাটিতে অনুষ্ঠিত টুর্নামেন্ট ঘিরে জৌলুষ খানিকটা কম থাকলেও বিবেকাননন্দ যুবভারতী ক্রীড়াঙ্গনে শনিবাসরীয় দুপুরে লড়াই হল হাড্ডাহাড্ডি। প্রথম থেকেই জর্জের রক্ষণে ক্রমাগত চাপ বাড়াতে থাকে উপত্যকার দলটি। তার ফল সরূপ ৩৫ মিনিটে জর্জ টেলিগ্রাফ বক্সে ফাউলের বিনিময়ে পেনাল্টি আদায় করে নেয় কাশ্মির। সেখান থেকে গোল করে দলকে এগিয়ে দেন লুকম্যান । তবে দ্বিতীয়ার্ধে আরও শক্তিশালী হয়ে ফিরে আসে কলকাতার দলটি। বাবলু ওরাওঁ’য়ের ক্রস থেকে জর্জের হয়ে ম্যাচে সমতা ফেরান পরিবর্ত গৌতম দাস। কিন্তু তার দশ মিনিট বাদে ম্যাচে ফের লিড নিয়ে নেয় রিয়াল কাশ্মীর। ফ্রি-কিক থেকে দানিশ ফারুখের ভাসানো বলে ম্যাসন রবার্টসনের হেড জালে প্রবেশ করতেই ২-১ গোলে এগিয়ে যায় রিয়াল কাশ্মীর। ম্যাচের ৭৮ মিনিটের মাথায় সেই গোল শোধের সুযোগ আসে জর্জের কাছে। কিন্তু পেনাল্টি থেকে গোল মিস করে জর্জের ম্যাচে ফেরার স্বপ্নে জল ঢেলে দেন তন্ময় দাস। তবে এক্ষেত্রে প্রশংসা করতে হবে কাশ্মীরের ক্লাবটির গোলরক্ষক মিঠুন সামন্তের। অনুমান দক্ষতাকে কাজে লাগিয়ে পেনাল্টি সেভ করে শেষ অবধি নায়ক বনে যান তিনি।

২০১৭ সালে প্রতিষ্ঠা হওয়া কাশ্মীরের ক্লাবটির এটাই প্রথম জাতীয় স্তরের ট্রফি। শিল্ড জয়ের আত্মবিশ্বাসকে সঙ্গী করে আসন্ন আইলিগে যে তারা আরও শক্তিশালী হয়ে মাঠে নামবে, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।