নিউজপোল ডেস্কঃ শ্মশানের ছাদ ভেঙে মৃত্যু ১৮ জনের।রবিবার দিল্লি সংলগ্ন উত্তরপ্রদেশের গাজিয়াবাদের মুরাদনগর এলাকায় এই মর্মান্তিক দুর্ঘটনা ঘটে। হঠাৎ করেই ভেঙে পড়ে শ্মশানের ছাদ। যার ফলে আহত হলেন বহু মানুষ। ইতিমধ্যে ১৮ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে। তবে মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্খা রয়েছে। এখনও উদ্ধার অভিযান চলছে।আহতদের ইতিমধ্যে তাঁদের উদ্ধার করে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

শ্মশানের ছাদ ভেঙে এখনও বহু লোক চাপা পড়ে রয়েছেন বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে। গাজিয়াবাদ পুলিশের পাশাপাশি রেসকিউ দল ঘটনাস্থলে পৌঁছে উদ্ধার কাজ শুরু করে দিয়েছে।

পুলিশ সূত্রে খবর, মৃত এবং আহতদের মধ্যে প্রত্যেকেই সৎকার করতে গিয়েছিলেন শ্মশানে। সেই সময় ঘটে এই দুর্ঘটনা ঘটনা। পুলিশ এবং জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা দ্রুত ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধারকাজ শুরু করে। প্রত্যেককে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। বছর শুরু থেকেই বৃষ্টিপাত শুরু হয়েছে দিল্লিতে। তার জেরে বিভিন্ন জায়গায় জমে গিয়েছে জল। এদিন সৎকার চলাকালীন বৃষ্টিপাত হচ্ছিল বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা। সেই সময় বৃষ্টি থেকে বাঁচতে ছাদের নীচে দাঁড়িয়েছিলেন অনেকে। হঠাৎই ভেঙে পড়ে ছাদ। ঘটনায় শোক প্রকাশ করেছেন উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথ। তিনি মৃতদের পরিবারকে ২ লক্ষ টাকা করে আর্থিক অনুদান দেওয়ার ঘোষণাও করেন। ইতিমধ্যে এই দুর্ঘটনায় তদন্ত রিপোর্টও দ্রুত জমা দিতে বলেছেন যোগী আদিত্যনাথ।

পুলিশ সূত্রে জানা গিয়েছে , গাজিয়াবাদ থানার মুরাদনগর এলাকার উখালারসি গ্রামে এক ব্যক্তির মৃত্যুর পরে আত্মীয়-স্বজনরা তাঁর শেষককৃত্যের জন্য শ্মশানে নিয়ে যায়। পরিবারটি যখন মৃত ব্যক্তির শেষকৃত্যটি করছিল তখন শ্মশান ঘাটের ছাদটি ধসে পড়ে। পুলিশ ইতিমধ্যে উদ্ধার অভিযানের জন্য ক্রেনের সাহায্য নিচ্ছে।