অত্যন্ত ধীর গতিতে হলেও রাজ্যে নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা বাড়ছে। ফলে ক্রমশ পরিষ্কার হচ্ছে রাজ্যের সংক্রমণের পরিস্থিতি। মঙ্গলবারের পর বুধবারও রাজ্যে দৈনিক আক্রান্তের সংখ্যা ২০ হাজার পেরিয়েছে। পাল্লা দিয়েছে বেড়েছে মৃত্যুও। গত ২৪ ঘণ্টায় নতুন করে রাজ্যে করোনা আক্রান্ত হয়ে ১৩৫ জনের মৃত্যু হয়েছে। দিল্লি ও মহারাষ্ট্রের মতো রাজ্যে সংক্রমণের হার ক্রমশ নিম্নমুখী হলেও পশ্চিমবঙ্গে কোনও ইতিবাচক ইঙ্গিত দেখা যাচ্ছে না বললেই চলে।

বুধবার প্রকাশিত রাজ্য স্বাস্থ্য দফতরের বুলেটিনে দেখা যাচ্ছে, একদিনে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ২০ হাজার ৩৭৭ জন। এই একই সময়ে ১৯ হাজার ২৩১ জন সুস্থ হয়ে উঠেছেন। যা কিছুটা হলেও স্বস্তি দিচ্ছে। অন্যদিকে, রাজ্যে সক্রিয় আক্রান্তের সংখ্যা বেড়ে ১ লক্ষ ২৮ হাজার ৬৮৪ হয়েছে। অন্যদিকে, গত কয়েকদিন যাবৎ দৈনিক নমুনা পরীক্ষার সংখ্যা ৬০-৬১ হাজারের মধ্যেই ঘোরাফেরা করছিল। এ দিনও তা কিছুটা বেড়েছে। স্বাস্থ্য দফতর সূত্রে জানানো হয়েছে, গত ২৪ ঘণ্টায় ৬৯ হাজার ৮৭৪টি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে।

সংক্রমণের নিরিখে সবচেয়ে শোচনীয় পরিস্থিতি উত্তর ২৪ পরগনা এবং কলকাতার। গত ২৪ ঘণ্টায় শুধুমাত্র কলকাতায় ৩,৯৮৯ জন আক্রান্ত হয়েছেন। শহরেই মৃত্যু হয়েছে ৪৪ জনের। সংক্রমণের হারে অবশ্য কলকাতাকে পিছনে ফেলে দিয়েছে উত্তর ২৪ পরগনা। এই জেলায় একদিনে আক্রান্ত হয়েছেন ৪,০৯১ জন। মৃত্যু হয়েছে ২৭ জনের। দৈনিক সংক্রমণের পরিমাণ হাজার ছাড়িয়েছে দক্ষিণ ২৪ পরগনা, হাওড়া এবং নদিয়ায়।