নিউজপোল ডেস্ক : সম্প্রতি কাফিল খানের বিরুদ্ধে দেশদ্রোহীতার একটি অভিযোগ তুলে সুপ্রিম কোর্টে মামলা করেছিলেন যোগী আদিত্যনাথ। কিন্তুু এদিন সুপ্রিম কোর্টের তরফ থেকে খারিজ করা হলো এই মামলা, এমনটাই জানা গিয়েছে কাফিল খানের নিজস্ব টুইট্যার অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে।

প্রসঙ্গত, এদিন সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি তাঁর নিজস্ব টুইট্যার অ্যাকাউন্টের মাধ্যমে একটি পোস্ট দিয়ে লেখেন, “আগেই এলাহাবাদ হাইকোর্ট আমাকে আইনের অধীনে আটকের রাখার ব্যপারে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছিলো এবং এটিকে বেআইনি বলে ঘোষণা করেছিলো কিন্ত এই মামলায় সন্তুষ্ট না হয়ে সুপ্রিম কোর্টে গিয়েছিলো যোগী সরকার। সেখানেও এই রায় বজায় থাকাতে এবং সুবিচার পেয়ে যথেষ্ট স্বস্থিবোধ করছি।”

জানা গিয়েছে, গতবছর আলিগড় ইউনিভার্সিটিতে কেন্দ্রের আনা এই ‘সিএএ’ আইন নিয়ে কাফিল খান বক্তব্য রাখলে তাঁর বিরুদ্ধে দেশদ্রোহীতার মামলা এনে সরব হন উত্তরপ্রদেশের যোগী সরকার। ফলস্বরূপ গত ২৯শে জানুয়ারি তাঁকে গ্রেফতার করা হয় এবং বলা হয় বিভিন্ন ধর্মের মধ্যে তিনি দ্বন্দ্ব সৃষ্টি করার চেষ্টা করছেন। তাই তাঁকে আটক করা হচ্ছে।

কিন্তুু এদিন দেশের সর্বপ্রধান বিচার বিচারপতি এসএ বোবদের বিচারালয়ে এই মামলার শেষে তিনি জানান, “এলাহাবাদ হাইকোর্ট যথেষ্ট সঠিক সিদ্ধান্ত নিয়ছে সেই রায়ই বজায় থাকে। কাফিল খান দেশদ্রোহী নন। এই বিষয়ে আর মাথা ঘামানোর প্রয়োজন নেই।”