নিউজপোল ডেস্ক: সবজি উৎপাদনে প্রথম স্থানে পশ্চিমবঙ্গ। উত্তরপ্রদেশকে পিছনে ফেলে ২০১৮-’‌১৯ সালে সবথেকে বেশি সবজি উৎপাদন করেছে আমাদের রাজ্য। দিনকয়েক আগে উদ্যানপালন সংক্রান্ত এক বৈঠকে উঠে এসেছে এই তথ্য।
গত সপ্তাহে কৃষি মন্ত্রকের পক্ষ থেকে এক সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। রাজ্যের ভিত্তিতে প্রকাশ করা হয় উদ্যানপালনের তথ্য।
২০১৮-’‌১৯ সালে ২৯.৫৫ মিলিয়ন টন সবজি উৎপাদন করেছে এই রাজ্য। আগের বছর এই সংখ্যাটা ছিল ২৭.৭০ মিলিয়ন টন। সবজি উৎপাদনে উত্তরপ্রদেশ ছিল প্রথম স্থানে। ২০১৭-১৮ সালে ২৮.৩২ মিলিয়ন টন সবজি উৎপাদন করলেও গত বছরের হিসাব অনুযায়ী এই সংখ্যা নেমে যায় ২৭.৭১-এ।
ফল উৎপাদনের ক্ষেত্রে প্রথম স্থানে রয়েছে অন্ধ্রপ্রদেশ। ২০১৮-১৯ সালে উৎপাদন হয়েছে ১৭.৬১ মিলিয়ন টন। মহারাষ্ট্র এবং উত্তরপ্রদেশে ফল উৎপাদনের পরিমাণ যথাক্রমে ১০.৮২ এবং ১০.৬৫ মিলিয়ন টন। ২০১৭-১৮ সালে দ্বিতীয় স্থানে ছিল আসাম। চলতি বছরে সেই স্থান দখল করেছে মহারাষ্ট্র। উৎপাদনে হার বেড়েছে উত্তরপ্রদেশেও। গত বছরে ফল উৎপাদনে ওই রাজ্যের স্থান তৃতীয়।

ওই সম্মেলনে আরও জানা যায়, সারা দেশের মধ্যে ১৫.৯ শতাংশ সবজি উৎপাদন করেছে পশ্চিমবঙ্গ। উত্তরপ্রদেশে সবজি উৎপাদনের হার ১৪.৯ শতাংশ। পাশাপাশি মধ্যপ্রদেশ ৯.৬ শতাংশ, বিহার ৯ শতাংশ এবং গুজরাট ৬.৮ শতাংশ সবজি উৎপাদন করেছে। ভারতে ২০০৪-০৫ সালে সবজি উৎপাদনের জন্য জায়গা ছিল ৬.৭৪ মিলিয়ন হেক্টর। ২০১৮-১৯ সালে তা বেড়ে হয়েছে ১০.১০ মিলিয়ন হেক্টর। ২০০৪-০৫ সালে ভারতে সবজি উৎপাদন হতো ১০১.২৫ মিলিয়ন টন এবং ২০১৮-১৯ সালে সেই সংখ্যা হয়েছে ১৮৫.৮৮মিলিয়ন টন। ১১.২ শতাংশ সবজি রপ্তানি করা হয় বিদেশে। যার মধ্যে রয়েছে আলু, টম্যাটো, পেঁয়াজ, বেগুন, বাঁধাকপি, ফুলকপি, কড়াইশুঁটি।

পাশাপাশি সম্মেলনে প্রকাশিত তথ্য থেকে আরও জানা গিয়েছে, কৃষিক্ষেত্রে ৯৮.৫৮ শতাংশ উৎপাদনের মধ্যে ৩১.৪ শতাংশ ফলই উৎপাদন হয় ভারতে। দেশে কৃষিজ জমির মধ্যে ২৬.১ শতাংশ জমিতে ফল উৎপাদন করা হয়। ২০১৮-১৯ সালে ফল উৎপাদন হয়েছে ৬.৬৫ মিলিয়ন হেক্টর জমিতে।