চার ধাম (Char Dham) যাত্রায় মৃত্যুর(Bengali Pilgrim Death) কোলে ঢলে পড়লেন এক বাঙালি তীর্থযাত্রী। পশ্চিমবঙ্গ থেকে পরিবারের সঙ্গে কেদারনাথ ধামে (Char Dham Yatra 2021) গিয়েছিলেন বাংলার এক পরিবার ৷ ৬৩ বছরের অনুপ কুমার হঠাৎই অসুস্থ হয়ে পড়েন ৷ তারপর হেলিকপ্টার পরিষেবার মাধ্যমে তাঁকে ফাটা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে নিয়ে জন্য হয়। কিন্তু হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করেন।

তীর্থযাত্রী অনুপবাবুর সঙ্গে ছিলেন তাঁর স্ত্রী ও ছেলেরা ৷ জানা গিয়েছে, ওই প্রবীণ ব্যক্তি, অনুপ কুমার সেনগুপ্ত পুত্র সুরেশ চন্দ্র, ২২২ ব্লক বি, বাঙ্গুর উত্তরের বাসিন্দা।

তিনি তাঁর স্ত্রী এবং পুত্রকে নিয়ে কেদারনাথ পৌঁছেছিলেন (Char Dham) । কিন্তু কেদারনাথে এসে হঠাৎই তাঁর স্বাস্থ্যের অবনতি ঘটে (Bengali Pilgrim Death) বলে সূত্রের খবর৷ জানা গিয়েছে, ক্রিস্টাল হেলি সার্ভিসের সাহায্যে তাঁকে ফাটাতে নিয়ে যাওয়া হয়।

মন্দির চত্বরে প্রবেশ করার আগেই তার স্বাস্থ্যের হঠাৎ অবনতি ঘটে। তাকে হেলিকপ্টারে করে ফাটাতে নিয়ে আসা হয়। তাকে হেলিকপ্টার থেকে বের করার সাথে সাথেই তার স্বাস্থ্যের(Bengali Pilgrim Death)  অবনতি ঘটে।

সে মাটিতে লুটিয়ে পড়ল। এর পরে, হেলিপ্যাডের কর্মীরা তাকে ১০৮ অ্যাম্বুলেন্সে প্রাথমিক স্বাস্থ্য কেন্দ্র ফাটা নিয়ে যান। সেখানে চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

তবে প্রাথমিক স্বাস্থ্যকেন্দ্র ফাটাতে কতর্ব্যরত চিকিৎসক জানান, হাসপাতালে আনার আগেই অনুপবাবু মৃত্যু(Bengali Pilgrim Death)  হয়েছে।

মৃতদেহটি পোস্টমর্টেমের জন্য জেলা হাসপাতাল রুদ্রপ্রয়াগে পাঠানো হয়েছে। এ নিয়ে চলতি বছরে এখন পর্যন্ত কেদারনাথে দুই তীর্থযাত্রীর মৃত্যু হয়েছে।

প্রসঙ্গত, চার ধাম যাত্রায় প্রতিদিন বাড়ছে তীর্থযাত্রীর সংখ্যা। কেদারনাথ যাত্রা (Char Dham Yatra 2021)  দিন দিন গতি পাচ্ছে।

হোটেল, রেস্তোরাঁ, লজ অপারেটররা ভালো বুকিং পাচ্ছেন। অন্যান্য দোকানদাররাও নিয়মিত গ্রাহক পাচ্ছেন ফলে ব্যবসা বাড়ছে স্থানীয়দের। কেদার ঘাটি থেকে ফুটপাত এবং ধাম পর্যন্ত যাত্রা(Char Dham Yatra 2021)  চলছে উৎসাহের সঙ্গে।

উল্লেখ্য, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় কেদারের দরজা বন্ধ করার তারিখ বিজয়া দশমীর দিন ঘোষণা করা হবে।

বিজয়াদশমীর দিন, দ্বিতীয় কেদার ভগবান মদ্মেশ্বর এবং তৃতীয় কেদার তুঙ্গনাথ মন্দিরের দরজা বন্ধ করার তারিখ পঞ্চাঙ্গ গণনার ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। এই উপলক্ষে বিশেষ পুজোও করা হবে।

অন্যদিকে, তৃতীয় কেদার তুঙ্গনাথের দরজা বন্ধ করার তারিখটি শীতকালে মার্কণ্ডেয় মন্দিরে বিশেষ পূজার মাঝখানে করা হবে।

দেবস্থানম বোর্ডের সিনিয়র প্রশাসনিক কর্মকর্তা রাজকুমার তিওয়ারি এবং মিডিয়া ইনচার্জ ড. হরিশ চন্দ্র গৌর জানান, ওমকারেশ্বর মন্দির এবং মার্কণ্ডেয় মন্দিরে বিশেষ পূজার আচারের জন্য সব প্রস্তুতি সম্পন্ন হয়েছে।