আগামী ৬ মাস গোটা নাগাল্যান্ডকে উপদ্রুত এলাকা হিসেব ঘোষণা করল কেন্দ্র। ফলে আগামী ৬ মাস সেখানে জারি থাকবে Armed Forces Special Powers Act বা আফস্পা। কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের দাবি, স্থানীয় প্রশাসনকে সাহায্য করার জন্য আফস্পা থাকা প্রয়োজন।

কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকের তরফে এক বিবৃতিতে জানানো হয়েছে,’গোটা ন্যাগাল্যান্ডে যে পরিস্থিতি তাতে সরকার মনে করছে এটি এখন একটি উপদ্রুত এলাকা। ফলে স্থানীয় প্রশাসনকে সাহায্য করার জন্য আর্মড ফোর্সের প্রয়োজন।’ অর্থাৎ উত্তরপূর্বের এই রাজ্যের ক্ষেত্রে অত্যন্ত কড়া পদক্ষেপ নিল কেন্দ্র।

রাজ্যের বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠী ন্যাশনাল সোশালিস্ট কাউন্সিল অব ন্যাগাল্যান্ড ও কেন্দ্রের মধ্যস্থতাকারী আর এন রবির সঙ্গে একটি শান্তিচুক্তি হয় ২০১৫ সালে। সেসময় উপস্থিতি ছিলেন খোদ প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। কিন্তু তার পর থেকেও রাজ্য থেকে আফস্পা তুলে নেওয়া হয়নি। গত ৩০ জুন নাগাল্যান্ডকে উপদ্রুত এলাকা হিসেবে ঘোষণা করে কেন্দ্র। এর মেয়াদ ছিল ৬ মাস।  এবার তা ফের বাড়ানো হল।

নাগাল্যান্ডজের কয়েকটি বিচ্ছিন্নতাবাদী গোষ্ঠীর দাবি, তাদের পৃথক সংবিধানও ও পৃথক পতাকা দিতে হবে। এই দাবির ক্ষেত্রে সামনের সারিতে ছিল Isak Muivah।  এক্ষেত্রে কাশ্মীরের মতোই একই অবস্থান নিয়েছে কেন্দ্রে। সংবিধানের মধ্য়ে থেকে কোনও একটি রাজ্যের জন্য পৃথক কোনও সংবিধান বা পতাকা দেওয়া সম্ভব নয়। সরকারের সঙ্গে আলোচনায় বিষয়টি মেনে নেয় Isak Muivah। কিন্তু সরকারের প্রস্তাব শেষপর্যন্ত বাতিল করে দেয় Isak Muivah। কিন্তু তা মেনে নেয় খাপলাং গোষ্ঠী। ফলে অচলাবস্থা বজায় থেকেই যায়। Isak Muivah যেহেতু শক্তিশালী গোষ্ঠী সেহেতু উত্তরপূর্বের এই রাজ্য তাদের দিকে তাকিয়েই কড়া পদক্ষেপ নিল কেন্দ্র।