চার ধাম যাত্রা শুরু হতেই ৩৯ তীর্থযাত্রীর মৃত্যুর ঘটনা ঘটল (Char Dham Yatra)।

এই ঘটনায় ইতিমধ্যেই উত্তরাখন্ড সরকারের কাছ থেকে রিপোর্ট তলব করেছে কেন্দ্র। রিপোর্ট জমাও দিয়েছে উত্তরাখন্ড সরকার।

জানা গিয়েছে রিপোর্টে উল্লেখ, তীর্থযাত্রীদের মধ্য়ে কেউ হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে, আবার কেউ দুর্ঘটনায় প্রাণ হারিয়েছেন।

বেশিরভাগেরই মৃত্যুর কারণ কারণ হিসাবে উঠে এসেছে উচ্চ রক্তচাপ, হার্ট অ্যাটাক, মাউন্টেন সিকনেস।

এমনটাই জানিয়েছেন উত্তরাখণ্ডের ডিরেক্টর জেনারেল হেলথ চিকিত্‍সক শৈলজা ভাট।

প্রসঙ্গত, করোনার প্রকোপ কাটিয়ে এবছর ভক্তদের জন্য ফের শুরু হয় চার ধাম যাত্রা।

৩ মে থেকে পুণ্যযাত্রা (Char Dham Yatra)শুরু হয়েছে।

স্বাস্থ্য আধিকারিকরা জানিয়েছেন, ঋষিকেশ ছাড়াও ভ্রমণের রাস্তায় বিভিন্ন জায়গায় ভক্তদের স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা হচ্ছে।

যমুনোত্রী ও গঙ্গোত্রীর পথে ডোবাটা ও হিনা, বদ্রীনাথ ধামের ভক্তদের জন্য পান্ডুকেশ্বরে একটি হেলথ ক্যাম্প করা হয়েছে।

শৈলজা ভাট জানান, যেসব ভক্তরা পুরোপুরি ফিট নন বা শারীরিকভাবে পুরো সুস্থ নন, তাঁদের চারধাম ভ্রমণ না করার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।

সেইসব ভক্তকে বিশ্রাম নিয়ে সুস্থ হওয়ার পর, তারপরই আবার যাত্রার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে।