অন্তর্বর্তীকালীন সভানেত্রী সনিয়া গান্ধী।

করোনা পরবর্তী অসুস্থতা এবং ফুসফুসের সংক্রমণের চিকিৎসার কারণে দিল্লির গঙ্গারাম হাসপাতালে সপ্তাহখানেক ধরে চিকিৎসাধীন ছিলেন কংগ্রেস (Congress) সভানেত্রী সনিয়া গান্ধী। তবে কিছুটা সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন তিনি গত সোমবার রাতে। এরপর চিকিৎসকরা তাকে আরও বেশ কিছু দিন বিশ্রাম নিতে বলেছেন, দাবি করা হয়েছে কংগ্রেস সূত্রে। এই অবস্থায় তিনি আরও কয়েক সপ্তাহ সময় চান, ইডি অফিসে গিয়ে ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলায় জেরার মুখোমুখি হতে। বুধবার সনিয়া নিজেই ইডি আধিকারিকদের চিঠি লিখে এই আর্জি জানিয়েছেন। সেই অনুরোধ ইডির তরফে মঞ্জুর করা হয়েছে বলেই জানা যাচ্ছে। আজ বৃহস্পতিবার নয়াদিল্লিতে ইডি সদর দপ্তরে হাজিরা দেওয়ার কথা ছিল কংগ্রেস সভানেত্রী সনিয়া গান্ধীর৷

Congress: Sonia faces cross-examination in National Herald case
Congress: ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলায় জেরার মুখোমুখি সোনিয়া

ন্যাশনাল হেরাল্ড মামলায় বেআইনি আর্থিক লেনদেনের অভিযোগে ইতিমধ্যেই কংগ্রেস (Congress) সাংসদ রাহুল গান্ধীকে লাগাতার পাঁচ দিন জেরা করছেন ইডি আধিকারিকরা।

 

এ বার সেই একই জেরার সূত্রেই সনিয়া গান্ধীর থেকে নতুন তথ্য সংগ্রহ করতে চায় কেন্দ্রীয় তদন্তকারীরা৷ এই প্রসঙ্গেই সামনে আসছে সনিয়া-রাহুলকে মুখোমুখি বসিয়ে জেরা করার ভাবনা, যেখানে ইয়ং ইন্ডিয়ান লিমিটেড সংস্থার দুই পদাধিকারীর মধ্যে কে ঠিক বলছেন, কে ভুল, তা দেখতে চাইবেন ইডি আধিকারিকরা।

 

ইয়ং ইন্ডিয়ান লিমিটেডের অন্যতম অংশীদার সনিয়া গান্ধীও, দাবি ইডি সূত্রেরই৷ এই প্রসঙ্গেই রাহুল গান্ধীর দেওয়া বয়ানের যথার্থতা খতিয়ে দেখার জন্য তাকে তাঁর মা সনিয়া গান্ধীর উলটোদিকে বসিয়ে একইসঙ্গে জেরা করার পরিকল্পনা আছে ইডি কর্তাদের, নয়াদিল্লিতে দাবি করা হয়েছে কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা সূত্রে৷

 

দিল্লিতে কংগ্রেস (Congress) নেতারা ইতিমধ্যেই রাহুল গান্ধীর ইডি জেরাকে ‘রাজনৈতিক প্রতিহিংসা’-র প্রতিফলন হিসেবে তুলে ধরে মোদী সরকার তথা বিজেপির বিরুদ্ধে সর্বাত্মক আন্দোলনে রাস্তায় নেমেছেন।