নিউজপোল ডেস্ক:‌ দিনের বেশিরভাগ সময়টাই কাটে কর্মক্ষেত্রে। ছুটিছাটা তাদের জীবনে সচরাচর আসে। আবেদন করলেও বাতিল হয়ে যায়। এমনকী নিজেদের জন্মদিনেও প্রিয়জনের সঙ্গ থেকে বঞ্চিত হয় পুলিশরা। এই পরিস্থিতি এবার বদলাতে চলেছে। উত্তরপ্রদেশের মুজফ্‌ফরনগর জেলার প্রতিটি থানায় কর্মরত পুলিশদের জন্মদিন পালন করা হবে। নির্দেশ এসএসপি–র। এক্ষেত্রে পুলিশের পদ বিবেচ্য নয়। নীচু থেকে ওপরতলার সব পুলিশ কর্মীদের জন্যই এই নিয়ম প্রযোজ্য।


এসএসপি অভিষেক যাদবের মতে, থানায় থানায় পুলিশ কর্মীদের জন্মদিন পালন করা হলে তাঁরা আর পরিবারকে অতটা মিস করবেন না। সহকর্মীদের সঙ্গেও সুসম্পর্ক গড়ে উঠবে। এই প্রসঙ্গে তিনি জানালেন, ‘‌পুলিশকর্মীদের জীবনে শুধুই কাজ আর কাজ। একদিনও ছুটি পান কিনা সন্দেহ। এমনকী উৎসব, সরকারি ছুটির দিনেও তাঁদের কাজে যোগ দিতে হয়। জন্মদিন পালন করে তাঁদের একটু আনন্দ দেওয়ার চেষ্টা করা হচ্ছে’‌। প্রত্যেক পুলিশ কর্মীকে জন্মদিনে গ্রিটিংস কার্ডও পাঠানো হবে। এই নিয়ম চালু হওয়ার পর প্রথম জন্মদিন পালন হয় সাব–ইনস্পেক্টর কৃষ্ণ কুমারের। ভোরা কালান থানায় নিযুক্ত তিনি। মঙ্গলবার ধুমধাম করে তাঁর জন্মদিন পালন হয়। তিনি জানালেন, ‘সত্যিই দারুণ খুশি হয়েছি। থানায় কেক কাটা, গান শোনা দারুণ এক অভিজ্ঞতা’‌। আয়োজন খুব বেশি ছিল না। কেক, স্ল্যাকস, কোল্ড ড্রিঙ্ক—এসবই ভাগাভাগি করে খেয়েছেন পুলিশকর্মীরা। আর তাতেই দারুণ উচ্ছ্বসিত ভোরা কালান থানার পুলিশরা। এসএসপি যাদব জানালেন, সোমবার এই প্রস্তাব তিনি দিতেই লুফে নেয় সব থানা। বুধবার শাহপুর থানায় জন্মদিন পালন হয় বিজয় পাল সিংয়ের। তিনি জানালেন, তাঁদের থানায় ৩০ জন পুলিশকর্মী রয়েছেন। মাসে গড়ে তিন জনের জন্মদিন পালন হবে। এখন থেকে ওই দিনগুলোর কথা ভেবেই উচ্ছ্বসিত তারা।