নিউজপোল ডেস্ক: গত ডিসেম্বরেই ১৭ দিনে ৭০টি জনসভায় ভাষণ দিয়ে ভোকাল কর্ড ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছিল পাঞ্জাবের কংগ্রেস নেতা নভজ্যোৎ সিং সিধুর। চিকিৎসা করিয়ে সুস্থ গয়ে দিব্যি ছিলেন তিনি। কিন্তু ফের একই সমস্যায় ভুগছেন তিনি। গত ২৮ দিনে ৮০টি প্রচারকার্যে প্রবলভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হয় তাঁর ভোকাল কর্ড। অতিরিক্ত কথা বলার কারণে রক্তক্ষরণও হয়েছে বলেও খবর। আপাতত স্টেরয়েড ওষুধ এবং ইঞ্জেকশন দেওয়া হয়েছে তাঁকে। সঙ্গে ৪৮ ঘণ্টা পূর্ণ বিশ্রাম নিতে বলেছেন চিকিৎসকরা। প্রাক্তন ক্রিকেটারের দফতর থেকে এই অসুস্থতার খবর নিশ্চিত করা হয়েছে। সুস্থ হয়েই তিনি রাজনৈতিক প্রচারে অংশ নেবেন বলে জানিয়েছে তাঁর দফতর।

জানা গেছে, ভোকাল কর্ড ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার পর সিধুর সামনে দুটি রাস্তা ছিল। এক, মলম যা ব্যবহার করলে আগামী চারদিন কথা বলতে পারবেন না তিনি। দুই, কড়া ডোজের ইঞ্জেকশন এবং স্টেরয়েড ওষুধ যাতে দু’দিন বিশ্রামে থাকতে হবে। সিধু দ্বিতীয়টাই বেছে নিয়েছেন। লোকসভা নির্বাচনের শেষ পর্যায়ের প্রচারে প্রবলভাবে থাকতে চান তিনি, জানা গেছে এমনটাই। প্রসঙ্গত, কিছুদিন আগেই সিধু বলেছিলেন, অমেঠি কেন্দ্র থেকে স্মৃতি ইরানির কাছে রাহুল গান্ধী হেরে গেলে তিনি রাজনীতি ছেড়ে দেবেন। এমনকী, মোদী-বিরোধী ব্যক্তব্য পেশ করায় রোড শো চলাকালীন এক মহিলার জুতোর নিশানা হন তিনি।