নিউজপোল ডেস্ক:‌ একদিকে দক্ষিণেশ্বর। উল্টোদিকে বেলুড় মঠ। এই দুই জায়গাকে জুড়েছে বালি ব্রিজ। আজকের বিবেকানন্দ সেতু। আর কয়েক বছর পরে ১০০–তে পা দিচ্ছে এই ব্রিজ। ১৯২৬ সালে নির্মাণ শুরু হয়েছিল। অত বছর আগে কলকাতা আর হাওড়াকে রেল এবং সড়কপথে জুড়তে কত খরচ হয়েছিল জানেন?‌ ১ কোটি টাকা।
যখন তৈরি হয়েছিল, নাম ছিল উইলিংডন ব্রিজ। ব্রিটিশ অধিকৃত ভারতের গভর্নর জেনারেল ও ভাইসরয় ফ্রিম্যান থমাসকে সম্মান জানিয়ে তাঁরই নামে সেতুর নামকরণ। থমাসের উপাধি ছিল মার্কেজ অফ উইলিংডন। ইংল্যান্ডের একটি জায়গা উইলিংডন। আর ব্রিটিশদের আর্ল এবং ডিউকের মাঝের উপাধি মার্কেজ। সেতুটির উদ্বোধনও করেছিলেন থমাস। ১৯৩১ সালের ২৯ ডিসেম্বর সেতুটি চালু হয়। তার আগে দক্ষিণেশ্বর থেকে বেলুড় জলপথেই যাতায়াত করতে হতো।
১৯২৬ সালে গুজরাটের কচ্ছের এক শিল্পপতি তথা রেল কন্ট্রাক্টর রাজবাহাদুর জগমল রাজা চৌহান এই সেতুর নির্মাণ শুরু করেন। সঙ্গে ছিল ব্রেথওয়েট সংস্থা। ৮৮০ মিটার লম্বা সেতুর ভিত তৈরির জন্য ১০০ ফিট গভীর গর্ত খোঁড়া হয়। এই সেতু দিয়ে ট্রেনের পাশাপাশি যান চলাচলেরও রাস্তা রয়েছে। এই বিশাল কর্মকণ্ডের খরচ পড়ে ১ কোটি টাকা। অত বছর আগেও।
সেতুর ওপর দিয়ে প্রথম যে ট্রেন চলে, নাম ছিল জগমল রাজা হাওড়া এক্সপ্রেস। নির্মাতা জগমল রাজাকে সম্মান জানান ছিল উদ্দেশ্য।