সুপ্রিম কোর্ট আস্থা ভোটের ওপর স্থগিতাদেশ না দেওয়ার সঙ্গে সঙ্গে উদ্ধব ঠাকরের ভাগ্য নির্ধারণ হয়ে যায়। তারপরেই ফেসবুক লাইভ করে উদ্ধব ঠাকরে মুখ্যমন্ত্রী পদে ইস্তফা দেওয়ার কথা ঘোষণা করেন।ঠিক সেই সময়ে মুম্বইয়ের একটি হোটেলে চলছিল বিজেপির বৈঠক। সেখানেই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী দেবেন্দ্র ফড়নবীশকে (Devendra Fadnavis) মিষ্টি খাইয়ে উৎসব পালন করে গেরুয়া শিবির।জানা যায়,আগামী ১ জুলাই শুক্রবার তিনি মুখ্যমন্ত্রী পদে শপথ নিতে পারেন।উদ্ধব ঠাকরের পদত্যাগের পর রাজ্যে ভারতীয় জনতা পার্টির (বিজেপি) সরকার গঠন প্রায় নিশ্চিত বলে মনে করা হচ্ছে।

উদ্ধব শিবিরের কাছে প্রথম ধাক্কা ছিল সুপ্রিম কোর্টে ১৬ বিধায়কের অযোগ্য ঘোষণা কার্যকর না হওয়া। সেখানেই সুপ্রিম কোর্ট ওই মামলার পরবর্তী শুনানির দিন ঠিক করে ১১ জুলাই। এদিকে সুপ্রিম কোর্টের এই রায়ের পরেই রাজ্যপাল চিঠি দিয়ে বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রী উদ্ধব ঠাকরেকে আস্থা ভোটের নির্দেশ দেন। তারই বিরুদ্ধে এদিন সুপ্রিম কোর্টে আবেদন করে উদ্ধব ঠাকরে শিবির। প্রায় সাড়ে তিন ঘন্টা শুনানি চলে। রাত নটার পরে এব্যাপারে রায় ঘোষণা করে সুপ্রিম কোর্ট। আস্থা ভোটের ওপরে স্থগিতাদের না দেওয়ার কথা জানিয়ে দেয় সুপ্রিম কোর্ট।

অন্যদিকে,তৃতীয়বার মহারাষ্ট্রের মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পথে দেবেন্দ্র ফড়নবীশ (Devendra Fadnavis)। তিনি এর আগে ২০১৪ থেকে ২০১৯ পর্যন্ত রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী ছিলেন। ২০১৪ সালের নির্বাচনে, বিজেপি ১২২টি আসন জিতে একক বৃহত্তম দল হয়ে ওঠে। তখন তাকে এনসিপি বাইরে থেকে সমর্থন দেয়। পরে বিজেপি শিবসেনারও সমর্থন পায়।

২০১৯ সালের নির্বাচনে, বিজেপি ১০৫ টি আসন জিতেছিল। যদিও মুখ্যমন্ত্রীর চেয়ার নিয়ে বিজেপি এবং শিবসেনার মধ্যে বিরোধ ছিল। এরফলে বিজেপিকে ক্ষমতার বাইরে রাখতে, শিবসেনা, কংগ্রেস এবং এনসিপির সঙ্গে হাত মিলিয়ে সরকার গঠন করে এবং উদ্ধব ঠাকরে মুখ্যমন্ত্রী হন।

আরও পড়ুন:Esha Gupta: বলিউডের নেপটিজম নিয়ে মুখ খুললেন এবার অভিনেত্রী এষা গুপ্তা