ডায়াবিটিস (Diabetes) রোগটি ভারতে ভীষন ভাবে বাড়ছে।

তথ্য সূত্রের খবর, মহিলাদের তুলনায় পুরুষ মানুষই এই রোগে আক্রান্ত হন বেশি।

তবে কয়েনের উল্টোপিঠের তথ্য হল, ডায়াবিটিস রোগটি প্রভাবে পুরুষের তুলনায়-মহিলার বেশি সমস্যা পড়তে পারেন বেশি।

Diabetes: Keep yourself healthy with diabetes, find out the way
ডায়াবিটিসে নিজেকে সুস্থ রাখুন

মহিলারা এই রোগ থেকে হার্ট ডিজিজ, কিডনির অসুখ, অন্ধত্ব, অবসাদ, ইউটিআই-এর মতো

সমস্যায় বেশি আক্রান্ত হতে পারেন বলে গবেষণায় উঠে এসেছে।(Diabetes)

 

ডায়াবিটিস ও মহিলারা-

এই রোগটি মহিলাদের জীবনে নানান সমস্যা তৈরি করতে পারে।

এমনকী মৃত্যুর ঝুঁকিও কয়েক গুণ বাড়িয়ে তুলতে পারে বলে জানা যাচ্ছে।

আসলে ডায়াবিটিস রোগটি নারীর সার্বিক স্বাস্থ্যে বিশাল প্রভাব ফেলে।

মহিলাদের খাওয়াদাওয়া, জীবনযাত্রা এবং ওজনই এই রোগের নেপথ্যে দায়ী।

ডায়াবিটিসের মতো মেটাবলিক ডিসঅর্ডার থেকে রক্তে সুগারের মাত্রা অনেকটা বেড়ে যায়।

যার প্রভাবে দেখা দেয় নানা সমস্যা।

এক্ষেত্রে বেশকিছু মহিলাদের রোগ যেমন- পিসিওএস, সেক্সের অনুভব কমে যাওয়া,

ভ্যাজিনাল ইচিং, বারবার মূত্রত্যাগ ইত্যাদি লক্ষণ দেখা দেয়।

এছাড়াও গবেষণা থেকে উঠে আসা তথ্য অনুযায়ী, ডায়াবিটিস থাকলে পুরুষদের তুলনায়

মহিলদের হার্টঅ্যাটাকে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও অনেক গুণ বেড়ে যায়।

এই রোগটির থেকে জীবনমরণ সমস্যা পর্যন্ত দেখা দিতে পারে।

অপরদিকে এই রোগটি মহিলাদের মধ্যে বন্ধ্যাত্ব, গর্ভপাত, অপরিণত বাচ্চা, মেনোপজের সমস্যা ইত্যাদি দেখা দিতে পারে।

তাই মহিলারা সুগার নিয়ে অবশ্যই সতর্ক থাকুন।

 

বিশেষজ্ঞের কথা অনুযায়ী, টাইপ ১ এবং টাইপ ২- এই দুই ধরনের ডায়াবিটিসের সঙ্গেই জড়িয়ে রয়েছে ফার্টিলিটি কমে যাওয়ার সমস্যা।(Diabetes)

এক্ষেত্রে বাচ্চা গ্রহণ করার বয়সে সুগার নিয়ন্ত্রণ খুবই জরুরি কারণ এই বয়সে সুগার নিয়ন্ত্রণে না রাখলে শুধু আপনার নয়, বাচ্চারও নানা সমস্যা দেখা দিতে পারে।

ডায়াবিটিসে আক্রান্ত মহিলাদের ফ্যালোপিয়ান টিউব ক্ষতিগ্রস্ত হতে পারে।

এমনকী শরীরে ইনফেকশন দেখা দেওয়ার আশঙ্কাও কয়েকগুণ বেড়ে যায়।

এছাড়া সেক্সের সময় দেখা দিতে পারে নানান সমস্যা।

যেমন মহিলাদের ভ্যাজিনাল লুব্রিকেশন কমে যায়।

ফলে শারীরিক ঘনিষ্ঠতার সময় ব্যথা হতে পারে।

 

 

নিজেকে সুস্থ রাখবেন কি করে জেনে নিন-

ডায়েট ঠিক করুন।

ফল, শাক, সবজি খান।

খেতে হবে আঁটা, ঢেঁকি ছাঁটা চাল, ডালিয়ার মতো হোল গ্রেইন।

জাঙ্ক ফুডে হাত দেবেন না।

কম খান তেল, ঝাল, মশলা। তবেই ভালো থাকবেন।

ওজন রাখুন স্বাভাবিক।

ডায়াবিটিস নিয়ন্ত্রণে এক্সারসাইজের উপর কোনও অস্ত্রই নেই।

তাই প্রতিদিন ব্যায়াম করুন।

ব্যায়াম করলে শরীরে ইনসুলিন ভালো কাজ করে। সুগার থাকে নিয়ন্ত্রণে।

তাই দিনে অন্তত পক্ষে ৩০ মিনিট ব্যায়াম করুন। তার কম সয় ব্যায়াম করলে কোনও লাভ হবে না।

নিয়মিত নিজের ওষুধ খান। ওষুধ আপনাকে সুস্থ রাখে।

চেকআপে থাকতেই হবে।

নিয়মিত সুগার পরীক্ষা করুন।

সেই মতো নিজের লক্ষ্য ঠিক করে নিন।