নিউজপোল ডেস্ক : এক ভয়াবহ ঘটনার সাক্ষী রইল বারাসত। এক সদ্যোজাত শিশুর শ্বাসনালীতে দুধ প্রবেশ করে তৎক্ষণাৎ মৃত্যু ঘটলো তার। ঘটনাটি প্রকাশ্যে আসার সাথে সাথেই হাসপাতাল চত্বরে ক্ষোভ ফেটে পড়েন স্থানীয়রা।

প্রসঙ্গত, শুয়ে থাকা অবস্থায় দুধ খাওয়াতে গিয়েই এই চরম বিপত্তি ঘটে এবং শিশুটির শ্বাসনালীতে দুধ প্রবেশ করে মৃত্যু ঘটে তার। জানা গিয়েছে, দুধ প্রবেশ করার সাথেই সাথেই কাঁদতে শুরু করে সে এবং তৎক্ষণাৎ সেই সময় ওয়ার্ডের দায়িত্বে থাকা নার্স খবর দিলে তিনি এসে জানান, “তেমন কিছু হয়নি মুখ মুছিয়ে পাখা চালিয়ে যাতে থাকে শুয়ে দেওয়া হয়।” কিন্তুু এরপরেই এই শিশুটির দম বন্ধ হয়ে গিয়ে মৃত্যু ঘটে তার।

এই ঘটনায় যথেষ্ট প্রশ্নবিদ্ধ হয়েছে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। সংবাদ সূত্রে পাওয়া খবর অনুযায়ী, এই ঘটনাটি ঘটার সাথে সাথেই শিশুটির মা, বাবা দীপঙ্কর বিশ্বাস ও শর্মিষ্ঠা বিশ্বাস রাজ্যের স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রক কমিশনে অভিযোগ জানিয়েছেন। গত ৪ই নভেম্বর হাসপাতালে ভর্তি হন শর্মিষ্ঠা দেবী কিন্তুু জন্মানোর পর থেকেই নানারকম শারীরিক সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছিলো শিশুটি।

এই অভিযোগ দায়ের এর পরেই হাসপাতাল কর্তৃপক্ষকে ডেকে পাঠানো হয়েছে রাজ্যের স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রক কমিশনের তরফ থেকে। এই বিষয়ে ওয়ার্ডের আয়া তার লিখিত বয়ানে জানিয়েছেন, “শিশুটির শ্বাসনালীতে দুধ আটকে গেলে নার্সকে ডাকলে তিনি এসে মুখ মুছে ফ্যান চালিয়ে শুয়ে দিতে বলেন। কিন্ত সেই সময় যন্ত্রণায় যথেষ্ট কষ্ট পাচ্ছিলো সে।”

হাসপাতালের সিসিটিভি ফুটেজ দেখে ঘটনাটির সত্যতা যাচাই হলে রাজ্যের স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রক কমিশন হাসপাতালটিকে নগদ দু লক্ষ টাকা জরিমানা ধার্য করেছে এবং খুব শীঘ্রই এই টাকা দিয়ে দেওয়ার কথা জানিয়েছে রাজ্যের স্বাস্থ্য নিয়ন্ত্রক কমিশন।