নিউজপোল ডেস্কঃ প্রথমার্ধেই ১০ জন। সেখান থেকে ইস্টবেঙ্গল দুরন্ত লড়াই করে ড্র করল চেন্নাইয়িন এফসির সঙ্গে। গোলশূন্য ম্যাচে অমীমাংসিত থাকল ফলাফল। আগের ম্যাচে শেষ মুহুর্তে গোল দিয়ে স্কট নেভিল ইস্টবেঙ্গলকে ১ পয়েন্ট এনে দিয়েছিলেন। এদিনও এল ১ পয়েন্ট। সবমিলিয়ে টানা ৭ ম্যাচ অপরাজিত থাকল ফাউলারের দল।

আগের ম্যাচের থেকে এদিনের একাদশে কোচ ফাউলার তিনটে পরিবর্তন করেছিলেন। রানা ঘরামি, ম্যাটি স্টেইনম্যান এবং হরমনপ্রীত সিং-কে বসিয়ে এদিন শুরুর একাদশে রাখা হয় সুরচন্দ্র, পিকলিংটন এবং কিছুদিন আগেই সই করা অজয় ছেত্রীকে। অজয় ছেত্রীর ইস্টবেঙ্গলে অভিষেক ম্যাচ অবশ্য সুখের হল না। ২১ ও ৩১ মিনিটে জোড়া হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন তিনি। ২১ মিনিটে প্রথমবার ফাউলের পর তাঁকে রেফারি সতর্ক করেই ছেড়ে দিয়েছিলেন। তবে অহেতুক তর্ক করায় হলুদ কার্ড দেখানো হয় তাঁকে। ঠিক ১০ মিনিটের মাথায় আরো একবার হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়তে হয় আজয়কে। যার জন্য লাল-হলুদ অভিষেক ঠিক সুখের হল না তাঁর। এই নিয়ে চলতি মরশুমে তিনবার দশ জন খেলতে হল লাল হলুদ ব্রিগেডকে। তবে একবারও হারেনি ফাউলারের দল।

মাত্র ৩১ মিনিটেই দশ জন হয়ে যাওয়ার পরে অবশ্য দমে যায়নি ইস্টবেঙ্গল। চেন্নাইয়িন আক্রমণকে প্রতিহত করে গিয়েছে অবশিষ্ট সময়। লাল কার্ড হজম করার আগে ম্যাচে ইস্টবেঙ্গলই দাপিয়ে খেলছিল। তবে অজয় বেরিয়ে যাওয়ার পরেই কিছুটা সতর্ক হয়ে যায় ইস্টবেঙ্গল। খোলসের মধ্যে ঢুকে যায় ইস্টবেঙ্গল। আর ঠিক তখন থেকেই ফাইনাল থার্ডে আক্রমণ বাড়াতে থাকে চেন্নাই। তবে সুবিধা করতে পারেনি তাঁরা। এদিনও ত্রাতার ভূমিকায় অবতীর্ণ হলেন দেবজিত। একাধিকবার নিশ্চিত গোল রুক্ষে দিয়ে দলের পতন রোধ করেন তিনি। যার ফলস্বরূপ ম্যাচের সেরা হয়েছন দেবজিত। 

এদিন ড্র’য়ের পরে ১২ ম্যাচে ১২ পয়েন্ট নিয়ে লিগ টেবিলে নবম স্থানেই থেকে গেল ফউলার ব্রিগেড। অন্যদিকে দু’বার আইএসএল জয়ী দল চেন্নাই ১২ ম্যাচে ১৫ পয়েন্ট নিয়ে রয়ে গেছে ষষ্ঠ স্থানেই।