নিউজপোল ডেস্ক: গত বছর মুক্তিপ্রাপ্ত নেটফ্লিক্সের ওয়েব সিরিজ সেক্রেড গেম্‌স সিজন ১-এর পর চলতি বছরই ১৫ আগস্ট সিজন ২ প্রকাশ পেল। তা ঘিরেই শুরু হয়েছে জল্পনা। সদ্য মুক্তিপ্রাপ্ত সেক্রেড গেম্‌স সিজন ২ কি আদৌ টেক্কা দিতে পেরেছে আগের সিজনকে? গুরুজি বলেছেন, ‘বলিদান দেনা হোগা’। এবারের সিজনে রহস্য, রোমাঞ্চ কি দর্শকদের ঘুম ‘বলিদান’ দিতে পেরেছে? কী বলছেন আমজনতা?
প্রথম সিজনে গণেশ গায়তোন্ডে চরিত্রে নওয়াজউদ্দিন সিদ্দিকি নজর কেড়েছিলেন দর্শকদের। বলা হয়, সেক্রেড গেমসের কেন্দ্রবিন্দু তিনিই। যদিও প্রথম এপিসোডেই তাঁর মৃত্যু দেখানো হয়েছিল। তবে এই সিজনে যে তাঁর প্রত্যাবর্তন হবে, তা নিয়েও আলোচনা কম হয়নি। পাশাপাশি জল্পনা হয়েছে গায়তোন্ডের ‘তৃতীয় বাবা’ অর্থাৎ গুরুজি চরিত্র নিয়েও। গত সিজনে এই চরিত্রটিকে রিজার্ভ বেঞ্চে রাখলেও এবার পরিচালকদ্বয় তাঁর চিন্তাভাবনাকে কেন্দ্র করেই সম্পূর্ণ ‘গেম’ খেলেছেন। গুরুজি চরিত্রে পঙ্কজ ত্রিপাঠীর অভিনয় মন কেড়েছে দর্শকদের। প্রথম সিজনে যে যে প্রশ্ন উঠেছিল, তার উত্তর কি নেটিজেনরা পেয়েছেন আটটি এপিসোডে সম্পূর্ণ সেক্রেড গেম্‌স ২-তে?
বিনোদনের দুনিয়ায় ওয়েব সিরিজের চাহিদা আকাশছোঁয়া। নেটফ্লিক্সে গত বছরেই এসেছিল সেক্রেড গেমসের প্রথম সিরিজ। টানটান উত্তেজনার এই ওয়েব সিরিজটি এতটাই জনপ্রিয় হয়েছিল যে সিজন ২-এর জন্য মুখিয়ে ছিলেন দর্শকরা। ২৫ দিনের যে ‘গেমপ্ল্যান’, তা কি আদৌ সফল হবে? সবচেয়ে বড় প্রশ্নেরও সরাসরি জবাব দেয়নি সিজন ২। এমন এক জায়গায় ওয়েব সিরিজটি শেষ করেছেন পরিচালক, যার প্রশংসা করেছেন অনেকেই। তবে রহস্য, রোমাঞ্চের দিক থেকে এই সিরিজের তুলনায় সেক্রেড গেমস ১-কেই এগিয়ে রাখছেন আমজনতার একাংশ।