নির্বাচনী প্রচারে দুর্নীতি করেছেন ফ্রান্সের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট সারকোজ়ি। এই অভিযোগ বারবার উঠেছিল তাঁর বিরুদ্ধে। কিন্তু প্রত্যেকবারই এই অভিযোগ অস্বীকার করেছেন নিকোলাস সারকোজ়ি। তবে এ বার দুর্নীতি মামলায় তাঁকে ৩ বছর জেলের সাজা শোনাল ফ্রান্সের আদালত। সারকোজির বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি নির্বাচনী প্রচারে দুর্নীতি মামলার অভ্যন্তরীণ খবর জানার জন্য এক বিচারপতিকে ঘুষ দিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, নির্বাচনী প্রচারে দুর্নীতির অভিযোগ অনেক দিন ধরেই সারকোজ়ির বিরুদ্ধে। বিভিন্ন সংবাদ মাধ্যমে প্রকাশিত প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০১২ সালের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের প্রচারে ২ কোটি ডলার গোপন করার জন্য ভুয়ো ব্যাঙ্কের নাম দেখিয়েছিলেন সারকোজ়ি। এমনও অভিযোগ ওঠে, প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রচারের জন্য বিগম্যালিয়ন নামে একটি কোম্পানির সাহায্য নিয়েছিল ফ্রান্সের দল ইউনিয়ন ফর পপুলার মুভমেন্ট। সেই থেকে সারকোজির বিরুদ্ধে এই মামলা ‘বিগম্যালিয়ন স্ক্যান্ডাল’ নামেও পরিচিত।

বিচারপতিকে ঘুষ দেওয়ার অভিযোগে সারকোজ়িকে ৩ বছরের জেলের সাজা দিয়েছিল ফ্রান্সের আদালত। তবে ২ বছরের সাজা বাতিল হয়ে যায়। তাই ১ বছরের সাজার মাধ্যমে সশরীরে সারকোজ়ির জেলে যাওয়ার সম্ভাবনা কম। ২০০৭ থেকে ২০১২ সাল পর্যন্ত ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ছিলেন সারকোজ়ি। এই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে যাওয়ার জন্য তাঁর কাছে ১০ দিন সময় রয়েছে।