নিউজপোল ডেস্ক: ফেসঅ্যাপের কথা মনে আছে নিশ্চয়ই! চলতি বছরের মাঝামাঝি সময়ে ঝড় তুলেছিল এই অ্যাপ্লিকেশন। অ্যাপটি ব্যবহার কতটা নিরাপদ, তা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছিল একাধিক প্রযুক্তি সংস্থা। এই মুহূর্তে ফেসঅ্যাপের জনপ্রিয়তা কমলেও এর নিরাপত্তা নিয়ে এবার প্রশ্ন তুলল মার্কিন তদন্তকারী সংস্থা এফবিআই। তার জেরেই শুরু হল নয়া জল্পনা।

ফেসঅ্যাপে ব্যবহারকারীর গোপন তথ্য কতটা নিরাপদ, তা নিয়ে মার্কিন তদন্তকারী সংস্থা এফবিআই-এর শরণাপন্ন হয়েছিলেন সেই মুলুকেরই সংখ্যালঘু নেতা চাক শুমার। জবাবে আশঙ্কা প্রকাশ করেছে গোয়েন্দা সংস্থাটি। সন্ত্রাসবাদের ঝুঁকির কথা জানিয়েছেন গোয়েন্দারা। একসময়ের জনপ্রিয় এই অ্যাপ্লিকেশনটি ডেভলপার দল রয়েছে রাশিয়াতে। সংবাদসূত্রের খবর, রাশিয়ার অন্যান্য অ্যাপ্লিকেশনগুলির নিরাপত্তা নিয়েও আশঙ্কা প্রকাশ করেছে এফবিআই।

অনেকেই হয়তো মনে করছেন, এখন তো তাঁরা ব্যবহার করেন না। সুতরাং সমস্যা থাকার কথাও নয়। কিন্তু যদি কেউ আগে কখনও এই অ্যাপ্লিকেশন ব্যবহার করেন, তার অর্থ সেই ব্যবহারকারীর তথ্য ইতিমধ্যেই ফেসঅ্যাপ নির্মাতাদের হাতে পৌঁছেছে। যদিও ফেস অ্যাপ ব্যবহারকারীর গোপন তথ্য রাশিয়া সরকারকে আদৌ সরবরাহ করেছে কিনা, সেই বিষয়ে কোনও নির্দিষ্ট প্রমাণ পাওয়া যায়নি।

কোন বলিউড বা হলিউড তারকার সঙ্গে মিল রয়েছে আপনার? আগামী ২০ বছরের মধ্যে আপনার কপালে কি কোনও বিদেশযাত্রার সুখবর লেখা আছে? কবে হবে আপনার বিয়ে? সোশ্যাল মিডিয়ায় ট্রেন্ডে গা ভাসাতেই অভ্যস্ত ব্যবহারকারীরা। ২০১৭ সাল নাগাদ এবং চলতি বছরের জুন-জুলাই মাস নাগাদ জনপ্রিয় হয়ে উঠেছিল ফেসঅ্যাপ নামের একটি অ্যাপ্লিকেশন। সেটি ইনস্টল করার সময় সেখানে যে নিয়মকানুনের কথা লেখা ছিল, তা নিয়ে সরব হয়েছিলেন অনেকেই। ব্যবহারকারীর গোপন তথ্যও নিরাপদ নয় এই অ্যাপ্লিকেশনে। এবার এফবিআই যে তথ্য তুলে ধরল, তা চিন্তার ভাঁজ ফেলেছে ফেস অ্যাপ ব্যবহারকারীদের কপালে।