জয়চণ্ডী পাহাড়ের একাংশে আগুন লাগল। স্থানীয় বাসিন্দাদের সূত্রে জানা যায়, সোমবার জয়চণ্ডী পাহাড়ের পেছনের অংশে শুকনো ঘাস ও গাছগুলিতে আগুন লাগে। বহু দূর থেকে আগুন ও ধোঁয়া নজরে আসে। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলের দিকে রওনা হলেও পাহাড়ের কাছে গাড়ি নিয়ে যেতে পারেননি দমকলকর্মীরা। গাছের ডাল ভেঙে প্রায় ঘণ্টাখানেকের চেষ্টায় আগুন নেভান তাঁরা।

জয়চণ্ডী পাহাড় লাগোয়া রঘুনাথপুর শহরের নন্দুয়াড়া এলাকার বাসিন্দাদের একাংশ জানান, রবিবারেও পাহাড়ে আগুন দেখা যায়। তাঁদের আশঙ্কা, পাহাড় লাগোয়া অংশে বসতি রয়েছে। কোনও ভাবে আগুন ছড়ালে প্রচুর ক্ষয়ক্ষতির আশঙ্কা রয়েছে। গত বছরেও জয়চণ্ডী পাহাড় লাগোয়া কিছু অংশে আগুন লাগে, যা নেভাতে দমকল হিমশিম খায়।

দমকল সূত্রে জানা যায়, পাহাড়ে আগুন নেভানোর মূল সমস্যা হল, আগুনের কাছাকাছি দমকলের গাড়ি নিয়ে যাওয়া যায় না। পাহাড়ে উঠে আগুন নেভানোর সরঞ্জামও অমিল। এই পরিস্থিতিতে গাছের ডাল ভেঙে ‘ব্যাটিং’ পদ্ধতিতে যতটা সম্ভব আগুন নিয়ন্ত্রণে আনতে হয়। এ দিনেও বহু দূরে গাড়ি রেখে দমকলকর্মীরা পাহাড়ের কাছে এসে ‘ব্যাটিং’ পদ্ধতিতে আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন। নন্দুয়াড়ার বাসিন্দা মিলনকুমার মাজি জানান, পাহাড়ে গাছের পাশাপাশি, একাধিক প্রজাতির পাখি ও বিভিন্ন বন্যজীব রয়েছে। আগুনে সেগুলিও সঙ্কটে পড়ে। ফি বছর আগুন লাগা রোধে নজরদারি রাখুক প্রশাসন।