করোনায় কাঁবু গোটা রাজ্য। বঙ্গে ফের রেকর্ড দৈনিক আক্রান্তের। মঙ্গলবার সন্ধেয় দেওয়া স্বাস্থ্য দফতরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে করোনা আক্রান্ত হয়েছেন ৯ হাজার ৮১৯জন। আশঙ্কা বাড়ল মৃতের সংখ্যায়। গত ২৪ ঘণ্টায় মৃত্যু হয়েছে ৪৬ জনের। অন্যদিকে, গত একদিনে সুস্থ হয়েছেন‌ ৪ হাজার ৮০৫ জন, যা দৈনিক আক্রান্তের অর্ধেকরও কম। পরিসংখ্যানে ক্রমহ্রাসমান দৈনিক সুস্থতার হার। এদিনে রাজ্যে সুস্থতার হার কমে হল ৮৯.৮২ শতাংশ। এত পরিমাণে আক্রান্ত হওয়ায় বাড়ল সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যাও। এদিন সক্রিয় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ল প্রায় ৫ হাজার। রাজ্যে এই পরিসংখ্যান অনুযায়ী অ্যাকটিভ রোগীর সংখ্যা ৫৮ হাজার ৩৮৬।

রাজ্যের স্বাস্থ্য দফতরের পরিসংখ্যান অনুযায়ী, কোভিড হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন‌ প্রায় ৭ হাজার মানুষ। বেড রয়েছে প্রায় ৮ হাজার। যদিও রাজ্যের একাধিক হাসপাতালের বেড প্রায় ভর্তি। যার ফলে রাজ্যে করোনা আক্রান্ত রোগীদের ভবিষ্যতে বেড পাওয়া যাবে কিনা তা নিয়ে শুরু হয়েছে চিন্তা।

ক্রমশ অবস্থা খারাপ থেকে খারাপতর হচ্ছে কলকাতার। আক্রান্তের নিরিখে সর্বাগ্রে কলকাতাই। মঙ্গলবার সন্ধেয় পাওয়া পরিসংখ্যানে শুধুমাত্র কলকাতাতেই গত ২৪ ঘণ্টায় করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ২ হাজার ২৩৪। মৃতের সংখ্যা সেখানে ১৩।  উত্তর চব্বিশ পরগণায় গত একদিনে নতুন আক্রান্তের সংখ্যা ১ হাজার ৯০২৷ কলকাতা তুলনায় উত্তর ২৪ পরগনায় মৃতের সংখ্যা বৃদ্ধি কত একদিনে মৃতের সংখ্যা রেকর্ড করেছে উত্তর ২৪ পরগনা সেখানে মৃত্যু হয়েছে ১৫ জনের।

গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে করোনা টেস্টের মাত্রা ছাড়িয়েছে ৫০ হাজার। বেশি বেশি হারে টেস্ট  হওয়ার কারণেই  আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে বলে অনুমান চিকিৎসকদের। এই অবস্থায় রাজ্যের অবস্থা  যে আরও খারাপের দিকে যাচ্ছে তা পরিসংখ্যানেই স্পষ্ট। এই ভাবে দিনের-পর-দিন আক্রান্তের সংখ্যা বাড়লে লকডাউন ছাড়া আর কোনও উপায় থাকবে কিনা তা নিয়ে সন্দিহান চিকিৎসক থেকে শুরু করে প্রশাসন।