নিউজপোল ডেস্ক : গৌরবান্বিত সমগ্র ভারতবর্ষ। করোনা আবহের জেরে সমগ্র পরিস্থিতি বিপাকে থাকলেও এদিন ভারতের ইসরো উৎক্ষপন করলো ৪২ তম নায়া উপগ্রহ। জানা গিয়েছে, উৎক্ষেপনের সাথে সাথে এই স্যাটেলাইট প্রাথমিকভাবে কাজ শুরু করলেও সম্পূর্ণভাবে কার্যকরী হতে এখনও সময় লাগবে প্রায় ৪ দিন।

প্রসঙ্গত, এদিন দুপুর আড়াইটে থেকে শুরু হয় এই স্যাটেলাইট উৎক্ষপনের কাউন্ট ডাউন। ‘ইসরো’র তরফ থেকে পাওয়া খবর অনুযায়ী, এই কাউন্ট ডাউন দুপুর আড়াইটে নাগাদ শুরু হলেও সময়সীমা ছিলো দুপুর ৩.৪১ পর্যন্ত। এই পিএসএলভি-সিএমএস-০১(PSLV-CMS-01) মিশনটির সমস্ত ব্যবস্থাপনা করা হয় সতীশ ধাওয়ান স্পেস সেন্টারে।

জানা গিয়েছে, এর অনেক আগেই এই স্যাটেলাইট উৎক্ষপনের কথা থাকলেও খারাপ আবহাওয়ার কারণে তা মুলতুবি করা হয়েছিলো কিন্তুু এদিন দুপুর ৩.৪১ নাগাদ শ্রীহরিকোটার সতীশ ধাওয়ান স্পেস সেন্টারের দ্বিতীয় লঞ্চপ্যাড থেকে এই উপগ্রহটি উৎক্ষেপন করা হয়। সূত্রে পাওয়া তথ্য অনুযায়ী, এই স্যাটেলাইট লঞ্চের ফলে এবার থেকে ভারতের মূল ভূখন্ড তো বটেই পাশাপাশি আন্দামান-নিকোবর এবং লাক্ষাদ্বীপে বর্ধিত সি ব্যান্ড পরিষেবা প্রদান করবে এটি।

শুধু তাই নয়, এই উপগ্রহ উৎক্ষেপনের ফলে ট্যালিভিশন চ্যানেলগুলির দৃশ্যমানতা যেমন উন্নত হবে তেমনি টেলিফোন যোগাযোগ ব্যবস্থাতেও যথেষ্ট উন্নতি সাধন ঘটবে। এই স্যাটেলাইটি আসলে ২০১১ সালে উপস্থাপিত হওয়া জিএসএটি-২ টেলিযোগাযোগ স্যাটেলাইটের প্রতিস্থাপক।