নিউজপোল ডেস্ক: সুশান্ত মৃত্যু তদন্তে গ্রেফতার রিয়া চক্রবর্তী শুক্রবার NCB-র জেরার সময় মাদক কাণ্ডে ২৫ জন আরও বলিউড সেলেবের নাম নিয়েছেন বলে দাবি সংবাদমাধ্যমে। এরমধ্যে অভিনেত্রী সারা আলি খান ও রাকুলপ্রিত সিং এবং পরিচালক মুকেশ ছাবরা (দিল বেচারা), ডিজাইনার সিমোন খাম্বাটার নাম রয়েছে বলে দাবি।

এরই মধ্যে ফের চাঞ্চল্যকর মোড় বলিউডের অন্দরে। ইন্ডাস্ট্রির বন্ধুবান্ধবদের নিয়ে বন্ধ দরজার ওপারে উত্তাল ড্রাগ পার্টি আয়োজন করার অভিযোগ এনে নালিশ দায়ের করলেন দিল্লির প্রাক্তন বিধায়ক মনজিন্দর সিং শিরসা। তাঁর অভিযোগের নিশানায় রয়েছেন করণ জোহর, রণবীর কাপুর, দীপিকা পাডুকোন, ভিকি কৌশলের মতো অভিনেতারা। বিতর্কের সূত্রপাত হয় ২০১৯ সালের ৩০ জুলাই। করণ জোহর সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করেন তাঁর হাউস পার্টির একটি ভিডিয়ো। যেখানে দেখা যায় আড্ডায় মত্ত রণবীর কাপুর, শাহিদ কাপুর, দীপিকা পাডুকোন, ভিকি কৌশল, অর্জুন কাপুরের মতো তারকারা। আর তার পরেই শিরোমণি অকালি দলের এক বিধায়ক মনজিন্দর সিং শিরসা অভিযোগ করেছিলেন পার্টিতে দেদার মাদক সেবন করছিলেন সেলেবরা। এই অভিযোগ উড়িয়ে দিয়ে করণ জোহর সেই সময়ে বলেছিলেন, তিনি অতটাও বোকা নন, যে মাদক পার্টির ভিডিয়ো সোশ্যাল মিডিয়ায় পোস্ট করবেন। সেই সময়ে বিষয়টি ধামাচাপা পড়লেও, ১৪ জুন সুশান্ত সিং রাজপুতের অস্বাভাবিক মৃত্যুর পরই ফের প্রকাশ্যে আসতে শুরু করেছে বলিউডের কঙ্কাল।

এই ভিডিয়োর সূত্র ধরেই এবার নার্কোটিকস কনট্রোল ব্যুরোতে গেলেন মনজিন্দর সিং শিরসা। সেখানে তিনি দেখা করেন এনসিবি প্রধান রাকেশ আস্থানার সঙ্গে এবং অনুরোধ করেন যাতে এই বিষয়ে বিস্তারিত তদন্ত করেন। তাঁর মতে করণ জোহরের বাড়ির পার্টির অন্দরে ঢুকলে খুলে যেতে পারে প্যান্ডোরার বাক্স। তাঁর লিখিত অভিযোগ এনসিবি-র হাতে তুলে দেওয়ার পর উপস্থিত সাংবাদিকদের দেওয়া সাক্ষাত্‌কারে মনজিন্দর সিং শিরসা বলেন, ২০১৯ সালের ১ অগস্ট তিনি ওই ভিডিয়োর ভিত্তিতে একটি অভিযোগ দায়ের করেছিলেন মুম্বই পুলিশে। কিন্তু তারা প্রাথমিক তদন্তও শুরু করেনি। সেই সময়ে স্পিড পোস্টে অভিযোগ পাঠিয়েছিলেন এবং বহুবার পুলিশকে তাগাদাও দিয়েছেন। এমনকি অভিযোগের কপি সোশ্যাল মিডিয়াতেও পোস্ট করেছিলেন। কিন্তু শেষ পর্যন্ত কোনও লাভ হয়নি। তাঁর দাবি, সঠিক সময়ে যদি মুম্বই পুলিশ তদন্ত শুরু করত তাহলে এমন অকালে সুশান্ত সিং রাজপুতকে হারাতে হত না।