উপনির্বাচনের পর কলকাতা ও হাওড়ায় পুরভোট (KMC Election)। কলকাতা ও হাওড়া কর্পোরেশনের ভোটের দিন

স্থির করে বিজ্ঞপ্তি জারি করার জন্য রাজ্য নির্বাচন কমিশনকে চিঠি দিল রাজ্য পুর ও নগরোন্নয়ন দফতর।

১৯ ডিসেম্বর ভোট ও ২২ ডিসেম্বর ভোট গণনা ও ফলাফল ঘোষনার জন্য নির্ধারিত হয়েছে (KMC Election)।

কমিশন সূত্রে খবর, আজ বিকেলে রাজ্য সরকারের পুর ও নগরোন্নয়ন দফতরের তরফে এই সংক্রান্ত চিঠি প্রথমে মেল

করে ও পরে স্পেশাল মেসেঞ্জার মারফত্‍ কমিশনের দপ্তরে পাঠানো হয়।

প্রথা মাফিক রাজ্য নির্বাচন কমিশনারকে ফোন করেন পুর ও নগরোন্নয়ন মন্ত্রী চন্দ্রিমা ভট্টাচার্য।

কমিশনের এক কর্তা বলেন, ‘রাজ্য সরকারের চিঠি পেয়েছি। ভোটের জন্য কমিশন প্রস্তুত। রাজ্য সরকারের সঙ্গে আলোচনা করে খুব

শিগগিরই কলকাতা কর্পোরেশনের মোট ১৪৪টি ও হাওড়া কর্পোরেশনের মোট ৬৬টি ওয়ার্ডের ভোটের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করবে কমিশন।’

২০২০ সাল থেকে কলকাতা পুরসভায় ভোট বকেয়া রয়েছে। হাওড়ায় ভোট বাকি রয়েছে ২০১৯ সাল থেকে।

করোনা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আসার পরই ভোটের করানোর সিদ্ধান্ত নিল রাজ্য সরকার।

উপনির্বাচনের পরেই যে রাজ্যে পুরভোট হতে পারে, আগেই সেই ইঙ্গিত দিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

পুজোর পর রাজ্যে করোনা পরিস্থিতির অবনতি হলেও এখনও তা নিয়ন্ত্রণে রয়েছে বলেই মনে করছে রাজ্য প্রশাসন।

রাজ্যে শাসক দলের প্রতি জনসমর্থনে যে ভাঁটা পড়েনি বরং তা বেড়েছে, ভোটের ফলেই তা স্পষ্ট।

ফলে পুরভোটের জন্য এটাই উপযুক্ত সময় বলে মনে করছে রাজ্য প্রশাসন এবং শাসক শিবির।

কলকাতা এবং হাওড়া ছাড়াও রাজ্যের শতাধিক পুরসভায় নির্বাচন বাকি রয়েছে। কলকাতা এবং হাওড়ার পর ধাপে ধাপে সেগুলিও করা হবে বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল।