নিউজপোল ডেস্ক:‌ তাঁর আগে সাতজন ভারতে জন্মগ্রহণকারী এই সম্মান পেয়েছেন। তিনি অষ্টম। অভিজিৎ বিনায়ক বন্দ্যোপাধ্যায়। ২০১৯ সালে অর্থনীতিতে অ্যালফ্রেড নোবেলের স্মৃতিতে স্ভেরিজেস রিকসব্যাঙ্ক পুরস্কার পেলেন। সস্ত্রীক। স্ত্রী এস্থার ডুফলো এবং সহ–গবেষক মাইকেল ক্রেমারও এই সম্মানে ভূষিত। অভিজিতের আগে নোবেল প্রাপকের তালিকায় রয়েছেন তিন জন বাঙালি। রবীন্দ্রনাথ ঠাকুর, অমর্ত্য সেন, মহম্মদ ইউনুস। বিশিষ্ট এই অর্থনীতিবিদের সম্পর্কে কিছু কথা জেনে নেওয়া যাক—


* কলকাতায় জন্ম অভিজিতের। বাবা দীপক বন্দ্যোপাধ্যায় প্রেসিডেন্সি বিশ্ববিদ্যালয়ে অর্থনীতি পড়াতেন। মা নির্মলা বন্দ্যোপাধ্যায়ও অর্থনীতিবিদ। সাউথ পয়েন্টে পড়াশোনা করেন।
* স্কুল শেষ করে প্রেসিডেন্সি কলেজে ভর্তি হন। অর্থনীতিতে সেখান থেকেই স্নাতক হন। জওহরলাল নেহরু বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর পাশ করেন।
*আরও এক নোবেলজয়ী বাঙালি অর্থনীতিবিদ অমর্ত্য সেনের ছাত্র ছিলেন তিনি।
* এর পর গবেষণার জন্য পাড়ি দেন হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে। সেখানে ১৯৮৮ সালে পিএইচডি শেষ করেন। থিসিসের বিষয় ছিল ‘‌এসেস ইন ইনফর্মেশন ইকনোমিক্স’‌।
* বর্তমানে এমআইটি (‌ম্যাসাচুসেটস ইনস্টিটিউট অফ টেকনোলজি)‌‌–তে অর্থনীতির অধ্যাপনা করেন। ফোর্ড ফাউন্ডেশন ইন্টারন্যাশনাল প্রফেসর তিনি।
* ২০০৩ সালে ‘‌আবদুল লতিফ জামিল পভার্টি অ্যাকশন ল্যাব’‌ (‌জে–পিএএল)‌ গঠন করেন। এই সংগঠন মাঠে নেমে ৫৬৮টি গবেষণা (‌ফিল্ড এক্সপেরিমেন্ট)‌ করে। তার মধ্যে গুজরাটে দূষণ নিয়ন্ত্রণ নিয়ে অডিট, ১০০ দিনের কাজ (‌এমএনআরইজিএ)‌ নিয়েও গবেষণা রয়েছে।
* ব্যুরো ফর দ্য রিসার্চ ইন দ্য ইকোনমিক অ্যানালিসিস অফ ডেভলভমেন্ট–এর পার্ট প্রেসিডেন্ট
* আমেরিকান অ্যাকাডেমি অফ আর্টস অ্যান্ড সায়েন্সেস–এর ফেলো নির্বাচিত হন।
* রাষ্ট্রসঙ্ঘের মহাসচিবের বিশিষ্ট ব্যক্তিদের নিয়ে তৈরি বিশেষ প্যানেলেরওসদস্য তিনি।
* ‘‌হোয়াট দ্য ইকোনমি নিডস নাও’‌ (‌২০১৯)‌, ‘‌পুওর ইকোনমি’‌ (‌২০১১)‌–এর মতো বই লিখেছেন। আরও অনেক বইয়ের সম্পাদনা করেছেন। দু’‌টি ডকুমেন্টরি ছবিও তৈরি করেছেন।
* ২০১৯ সালে লোকসভা ভোটের ইস্তেহারে কংগ্রেস জানায়, ক্ষমতায় এলে ন্যূনতম আয় যোজনা প্রকল্প আনবে। এই প্রকল্পের অন্যতম পরামর্শদাতা হলেন ডা.‌ অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়।
* মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ক্ষমতায় আসার পর প্রেসিডেন্সির জন্য যে মেন্টর গ্র‌ুপ তৈরি করেছিলেন, সেই গ্র‌ুপের সদস্য ছিলেন অভিজিত্‍। তাঁকে এদিন টুইটারে অভিনন্দন জানিয়েছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।